১৩-২৩ জুন থেকে চলবে ঈদে বিশেষ লঞ্চ

আগামী ১৭ জুন দেশজুড়ে পবিত্র ঈদুল আজহা উদ্‌যাপিত হবে। এরই মধ্যে দক্ষিণাঞ্চলের ৪১টি রুটে ঘরমুখো মানুষের যাতায়াতে প্রস্তুত রয়েছে শতাধিক লঞ্চ। তবে ঈদযাত্রা ঘিরে এবার ১০ দিন বিশেষ লঞ্চ চলাচল করবে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) নৌনিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগের ঢাকা নদীবন্দর কার্যালয় সূত্রে এমন তথ্য জানা গেছে।

সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, এরই মধ্যে বিশেষ লঞ্চ চলাচলের প্রস্তুতিও সম্পন্ন হয়েছে। আগামী ১৩ জুন থেকে এই বিশেষ লঞ্চ চলাচল সার্ভিস চালু হবে। যা চলবে আগামী ২৩ জুন পর্যন্ত। তবে এ ক্ষেত্রে বিশেষ লঞ্চ চলাচলের বিষয়টি নির্ভর করবে যাত্রীদের উপস্থিতির ওপর।

বর্তমানে পদ্মাসেতুর কারণে সদরঘাটে যাত্রীদের তেমন চাপ পড়ে না বলে জানিয়েছেন অভ্যন্তরীণ নৌ চলাচল (যাপ) সংস্থার ঢাকা নদীবন্দরের আহ্বায়ক ও এমভি অভিযান লঞ্চের মালিক মামুন অর রশিদ। তিনি জানান, টার্মিনালে আগের মতো চাপ না থাকলেও ঈদে ঘরমুখো যাত্রীদের বহনে পর্যাপ্ত লঞ্চ প্রস্তুত রয়েছে।

মামুন অর রশিদ আরো জানান, যেদিন গার্মেন্টস ছুটি হবে সেদিন থেকে বিশেষ লঞ্চ চলাচল শুরু করবে। এ ব্যাপারে আমাদের প্রস্তুতি রয়েছে। সাধারণত যেসব যাত্রী নিয়মিত যাতায়াত করেন তারাই অনলাইন ও মুঠোফোনের মাধ্যমে আগাম টিকিট বুকিং দিয়ে থাকেন। এছাড়া নৌপথে যাত্রী কমে যাওয়ায় অগ্রিম টিকিটের জন্য যাত্রীদের আগ্রহ কম।

এ বিষয়ে বিআইডব্লিউটিএ’র নৌনিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগের ঢাকা নদীবন্দরের পরিচালক জয়নাল আবেদীন জানান, ঈদে যাত্রীবাহী নৌযানে নিরাপদ ও হয়রানিমুক্ত চলাচল নিশ্চিতে প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। আগামী ১৩ জুন থেকে বিশেষ লঞ্চ চলাচলের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। তবে বিশেষ লঞ্চ চলাচল যাত্রীদের উপস্থিতির ওপর নির্ভর করবে।