জেমিনি অ্যাপ তৈরিতে ছিলেন বাংলাদেশের জাহিদ সবুর

গুগলের জেমিনি মোবাইল অ্যাপ তৈরির ইঞ্জিনিয়ারিং টিমের প্রধান বাংলাদেশের জাহিদ সবুর। গুগলের আই/ও শেষ হওয়ার পরপরই তিনি নিজের ব্যক্তিগত ফেসবুক প্রফাইলে করা পোস্টের মাধ্যমে তুলে ধরেন তাঁদের টিমের অসামান্য অর্জনের কথা। তিনি বলেন, ‘শুধু গুগলের ট্রিলিয়ন ডলার মার্কেট ক্যাপকেই তিনি অর্জন হিসেবে দেখছেন না, বরং তাঁর ধারণা, জেমিনি পুরো মানবজাতির জন্যই কল্যাণ বয়ে আনবে, যা হয়তো আমরা এখনো ধারণাও করতে পারছি না।’ সবার ভালোবাসা ও দোয়ার জন্য তিনি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

অঙ্গীকার করেছেন ভবিষ্যতে আরো অসাধারণ কাজ উপহার দেওয়ার।
জাহিদ সবুর বাংলাদেশি হলেও সৌদি আরবে জন্মেছিলেন। তাঁর বাবা ওই সময় কিং ফয়সাল বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত ছিলেন। তিনি আট বছর বয়সে বাংলাদেশে ফেরেন, বড় হয়েছেন পটুয়াখালীতে।

এরপর তিনি স্নাতক পাস করেছেন আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি-বাংলাদেশ বা ‘এআইইউবি’ থেকে। তিনি ডিগ্রিটি সম্পন্ন করেছে সিজিপিএ ৪ ধরে রেখে, ভার্সিটির ইতিহাসে গড়েন রেকর্ড। ২০০৭ সালে গুগলের বেঙ্গালুরু অফিস থেকে ব্যাকেন্ড সিস্টেম ডেভেলপমেন্ট কাজ শুরু করেন। তবে ছয় মাসের মধ্যেই তাঁকে ক্যালিফোর্নিয়ার অফিসে নিয়ে যাওয়া হয়।
২০১৯ সালের শেষে তাঁকে গুগলের জুরিখ অফিসে প্রিন্সিপাল ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে প্রমোশন দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে তিনি জেমিনির অ্যানড্রয়েড অ্যাপ তৈরির লিড ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কাজ করছেন।