ভাষা শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাত ১২টা ১ মিনিটে প্রথমে রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন ও পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

পুষ্পস্তবক অর্পণের পর ভাষা শহীদদের সম্মানে কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী।

২১ ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের নেতারা২১ ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের নেতারা। ছবি: বাসসপ্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকেও শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। সঙ্গে ছিলেন সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ, ডা. দীপু মনিসহ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা।

এরপর জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরিন শারমিন চৌধুরী, ডেপুটি স্পিকার শামসুল আলম টুকু, প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান শ্রদ্ধা জানান। এরপর পর্যায়ক্রমে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ, নৌবাহিনী প্রধান এডমিরাল মোহাম্মদ নাজমুল হাসান এবং বিমানবাহিনী প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল শেখ আবদুল হান্নান।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মোট ২১ বার সরকার প্রধান হিসেবে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের বেদিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এ উপলক্ষে ২১টি পুষ্পস্তবক অর্পণের ছবি নিয়ে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় একটি প্রদর্শনীর আয়োজন করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। প্রধানমন্ত্রী সেটি ঘুরে দেখেন।

এরপর সম্মানিত ভাষা সৈনিকবৃন্দ, চিফ হুইপ নুরে আলম, পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাছান মাহমুদ, কূটনৈতিক মিশন, রাষ্ট্রদূত, হাইকমিশনারবৃন্দ, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালসহ সরকারের অন্যান্য মন্ত্রী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এ এস এম মাকসুদ কামালসহ বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম, দক্ষিণ করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস, বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা, নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার হাবিবুল আউয়াল, এফবিসিসিআই নেতৃবৃন্দ, অ্যাটর্নি জেনারেল আবু মোহাম্মদ আমিন উদ্দিন শ্রদ্ধা জানান।

আরও শ্রদ্ধা জানান বাংলাদেশ পুলিশের আইজিপি চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন, বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল এ কে এম আমিনুল হক, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মাইন উদ্দিন, অতিরিক্ত কারা মহাপরিদর্শক কর্নেল শেখ সুজাউর রহমান।

সংসদ সদস্যবৃন্দ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি, ঢাকা ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ), স্বেচ্ছাসেবক লীগ, জেএসডি, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন, রাশেদ খান মেনন শ্রদ্ধা জানান।