রাজবাড়ী হয়ে পদ্মা সেতু দিয়ে ঢাকা যাবে দুই ট্রেন, এলাকায় আনন্দ

রাজবাড়ী থেকে ট্রেনে ঢাকা। রাজবাড়ীবাসীর এই স্বপ্ন সত্যি হতে চলেছে। ১ নভেম্বর থেকে রাজবাড়ীর উপর দিয়ে ঢাকা যাবে ট্রেন। মাত্র আড়াই ঘণ্টায় যাওয়া যাবে ঢাকায়। আপাততঃ দুটি ট্রেন চলাচল করবে বলে নিশ্চিত করেছে রেল কর্তৃপক্ষ। ধাপে ধাপে ট্রেন সংখ্যা বাড়তে পারে বলে শোনা যাচ্ছে। রাজবাড়ীবাসী এই খবরে আনন্দিত হয়েছে, তবে সময়সূচি নিয়ে কিছুটা অসন্তোষও প্রকাশ করেছে।

স্থানীয়রা বলছে, রেলের শহর হিসেবে পরিচিত রাজবাড়ী। রাজবাড়ী থেকে খুলনা, রাজশাহী, ভাঙ্গা, ভাটিয়াপাড়া ট্রেনে যাতায়াত করা যায়। সরাসরি ঢাকার সাথে রেল লাইন না থাকলেও রাজবাড়ীবাসী স্বপ্ন দেখতো একদিন ট্রেনে করে ঢাকা যাওয়ার। পদ্মা সেতু চালু হওয়ার পর সে স্বপ্ন ডানা মেলতে শুরু করে। আর এখন তো স্বপ্নের খুব কাছে রাজবাড়ীবাসী।

বাংলাদেশ রেলওয়ে ট্রাফিক ট্রান্সপোর্টেশন শাখার উপ-পরিচালক শওকত জামিল মোহসী স্বাক্ষরিত চিঠি সূত্রে জানা গেছে, বঙ্গবন্ধু সেতু দিয়ে খুলনা-ঢাকা-খুলনা রুটে চলাচলকারী ৭২৫/৭২৬ নং সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনের রুট পরিবর্তন করে ১ নভেম্বর থেকে এবং বেনাপোল-ঢাকা-বেনাপোল রুটে চলাচলকারী ৭৯৫/৭৯৬ নং বেনাপোল এক্সপ্রেস ট্রেন ২ নভেম্বর থেকে পদ্মা সেতু দিয়ে চলাচল করবে।

রেলওয়ে সূত্র জানায়, সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি খুলনা থেকে রাত ৯টা ৪৫ মিনিটে ছেড়ে রাজবাড়ী আসবে রাত ২টা ২০ মিনিটে। ৫ মিনিটের বিরতি দিয়ে ২টা ২৫ মিনিটে ছেড়ে ঢাকা পৌঁছাবে ভোর ৫টায়। এই ট্রেনটি সকাল ৮টা ১৫ মিনিটে ঢাকা থেকে ছেড়ে রাজবাড়ী আসবে ১০টা ৪০ মিনিটে। ১০ মিনিট বিরতি দিয়ে ১০টা ৫০ মিনিটে ছেড়ে খুলনা পৌঁছাবে দুপুর ৩টা ৫০ মিনিটে।

অন্যদিকে বেনাপোল এক্সপ্রেস ট্রেন দুপুর ১টায় বেনাপোল থেকে ছেড়ে রাজবাড়ী এসে পৌঁছাবে সন্ধ্যা ৬টায়। ৬টা ১০ মিনিটে রাজবাড়ী থেকে ছেড়ে ঢাকা পৌঁছাবে রাত ৮টা ৪৫ মিনিটে। আবার ঢাকা থেকে রাত ১১ টা ৪৫ মিনিটে ছেড়ে রাজবাড়ী পৌঁছাবে রাত ২টা ২০ মিনিটে। ট্রেনটি বেনাপোলে ফিরে যাবে সকাল ৭টা ২০ মিনিটে।

এই ট্রেন দুটি আপাতত পোড়াদহ জংশন স্টেশনের পর কুষ্টিয়া কোর্ট, রাজবাড়ী, ফরিদপুর, ভাঙ্গা জংশন স্টেশনে থামবে। পোড়াদহ থেকে ঢাকা পর্যন্ত মোট স্টেশনের সংখ্যা ৩২টি।

রাজবাড়ীর পরিচিত মুখ সাবেক জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সৈয়দ সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ট্রেন রাজবাড়ীর উপর দিয়ে যাবে- এটা অনেক ইতিবাচক। কিন্তু যে সময়সূচি নির্ধারণ করা হয়েছে তা রাজবাড়ীর মানুষের খুব একটা কাজে আসবে না। সময়সূচি পরিবর্তন হলে খুবই ভালো হতো। রাজবাড়ী-ঢাকা-রাজবাড়ী একটি ট্রেন দাবি করেন তিনি।

রাজবাড়ী শিশু রাজ্যের অধ্যক্ষ ও রাজবাড়ী একাডেমির সহ সভাপতি মুহাম্মদ সাইফুল্লাহ বলেন, রাজবাড়ীর উপর দিয়ে ট্রেন যাচ্ছে এজন্য রেল কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ। নিরাপদ সাচ্ছন্দ্যে মানুষ যাতায়াত করতে পারবে। ঢাকা খুব সহজেই যাওয়া যাবে- এর চেয়ে সুখের কথা আর কী হতে পারে।

রাজবাড়ী রেলস্টেশনের স্টেশন মাস্টার তন্ময় কুমার দত্ত জানান, আপাতত খুলনা-ঢাকা চলাচলকারী সুন্দরবন এক্সপ্রেস এবং বেনাপোল-ঢাকা চলাচলকারী বেনাপোল এক্সপ্রেস ট্রেন দুটি রাজবাড়ীর উপর দিয়ে চলাচল করবে- এ চিঠি তারা পেয়েছেন। এজন্য তারা প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নিচ্ছেন। আরামদায়ক ভ্রমণের জন্য রেল জনপ্রিয়। মানুষ যাতে সাচ্ছন্দ্যে ভ্রমণ করতে পারে সেজন্য তারা সর্বদা সচেষ্ট রয়েছেন। রাজশাহী-ভাঙ্গা চলাচলকারী আন্তনগর মধুমতি এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঢাকা পর্যন্ত নেওয়া হতে পারে এমন কথাও শুনেছেন বলে জানান তিনি।