বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে বেড়েছে রাজস্ব আদায়

বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে ২০২২-২৩ অর্থবছরে ৬৪ কোটি ৭ লাখ টাকা রাজস্ব আদায় করেছে কাস্টম শুল্ক স্টেশন। যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৫ কোটি ৭৪ লাখ টাকা বেশি।

কাস্টমস সূত্রে জানা গেছে, ২০২২-২৩ অর্থবছরের ৫৮ কোটি ৩৩ লাখ টাকা রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে দেয় জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে আদায় হয়েছে ৬৪ কোটি ৭ লাখ টাকা। লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় ৫ কোটি ৭৪ লাখ টাকা বেশি আদায় হয়েছে। অর্থবছরের চলতি জুন মাসের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয় ৩ কোটি ৫৭ লাখ টাকা। আদায় হয়েছে ১৫ কোটি ৭৪ লাখ টাকা।

বাংলাবান্ধা আমদানি-রপ্তানিকারক গ্রুপের সভাপতি আব্দুল লতিফ তারিন জানান, করোনার মধ্যেও বাংলাবান্ধা বন্দরে লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে দ্বিগুণ রাজস্ব আয় হয়েছে। করোনার পর বৈশ্বিক পরিস্থিতিতে অর্থনীতিতে মন্দা, ডলার-সংকটসহ সৃষ্ট কিছু সমস্যা তৈরি হলেও ভালো রাজস্ব আদায় হয়েছে।

বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর ব্যবস্থাপক আবুল কালাম আজাদ বলেন, এ বন্দরে প্রধান আমদানি পণ্য হচ্ছে পাথর। ভুটান ও ভারত থেকে এ পাথর আমদানি করা হয়। পাথর ছাড়াও গম, ভুট্টা, গমের ভুসি, প্লাস্টিক দানা, আদা, অয়েল কেক (খৈল), চাল, প্রসাধনী কাজে ব্যবহৃত রমেটেরিয়ালস আমদানি রপ্তানি হচ্ছে। তাই বন্দরটিতে রাজস্ব আয় হচ্ছে।

বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরের শুল্ক স্টেশনের সহকারী কমিশনার জে এম আলী আহসান জানান, শুল্ক স্টেশনের কর্মকর্তাদের অক্লান্ত পরিশ্রম, দক্ষতা ও বন্দর সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীদের সহযোগিতার কারণে লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে রাজস্ব আদায় সম্ভব হয়েছে।