দর্শনা স্টেশনে পৌঁছালো ভারতের উপহার ২০টি রেল ইঞ্জিন

ভারতের কাছ থেকে উপহার হিসাবে ২০ রেল ইঞ্জিন (লোকমোটিভ) উপহার হিসেবে নিল বাংলাদেশ। মঙ্গলবার (২৩ মে) দুই দেশের রেলমন্ত্রীর উপস্থিতিতে এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে দর্শনা গেটে ইন্টারচেঞ্জ পয়েন্টে উপহারের ২০টি ব্রডগেজ (বিজি) লোকোমোটিভ হস্তান্তর করা হয়। বিকেলে দর্শনা স্থলবন্দর দিয়ে ইঞ্জিনগুলো বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে।

রেলের ২০ ইঞ্জিন বুঝে নিয়ে রেলপথ মন্ত্রী নূরুল ইসলাম বলেন, ‘ভারত বিনা পয়সার আমাদের ২০টি পুরনো ব্রডগেজে লোকোমোটিভ উপহার দিলেন।

চুয়াডাঙ্গা সীমান্তের দর্শনা আন্তর্জাতিক রেলওয়ে ষ্টেশনে বাংলাদেশের উপহার ভারতীয় ২০টি রেল ইঞ্জিন আনুষ্ঠানিক ভাবে গ্রহন সম্পূর্ন হয়েছে। এ রেল ইঞ্জিন গ্রহণ উপলক্ষে জাঁকজমক ভাবে সাজানো হয় দর্শনা আন্তর্জাতিক রেলওয়ে স্টেশন। রেল ইঞ্জিন গ্রহণ উপলক্ষে উৎসব মূখর হয়ে ওঠে দর্শনা আন্তর্জাতিক রেলওয়ে স্টেশন চত্বর।

মঙ্গলবার (২৩ মে) বিকাল ৫টায় মুশলধারায় বৃষ্টির মধ্যে লোকোমোটেড গুলো ভারতের পশ্চিমবঙ্গের গেদে রেলস্টেশন থেকে দর্শনা রেলস্টেশনে এসে পৌঁছায়। হস্তান্তর উপলক্ষে ভার্চ্যুয়ালী অনুষ্টানে দর্শনা রেলওয়ে স্টেশনে উদ্বোধন করেন ভারতের পক্ষে বক্তব্য রাখেন, রেলওয়ে কমিউনিকেশন, ইলেকট্রনিকস ও ইনফরমেশন টেকনোলজি মন্ত্রী শ্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব ও বাংলাদেশের পক্ষে বক্তব্য রাখেন রেলওয়ে মন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন।

এ সময় রেল মন্ত্রী নৃরুল ইসলাম সুজন বলেন, এ সরকারের উন্নয়ন দেখে বিরোধী দল ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। ২০২৪ সালের মধ্যে বাংলাদেশে কোন রকম রেলওয়েতে কোন ভোগান্তি থাকবে না। তিনি আরও বলেন ভারত- বাংলাদেশ এ উপহার দেওয়ায় ইতিহাসের পাতায় লেখা থাকবে এবং বাংলাদেশ মনে রাখবে। ২০টি রেলের ইঞ্জিন উপহার দেওয়ায় বাংলাদেশ – ভারতের মধ্যে সু সুম্পর্ক আরও গাড় হলো। এবং বাংলাদেশ আরেকধাপ উন্নয়নের দিকে পা বাড়ালো।এ সময় ভারতের দিল্লীতে উপস্থিত ছিলেন ভারতে অবস্থানরত বাংলাদেশের রাস্ট্রদুত নুরুল ইসলাম, ঢাকা রেলভবনে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে রেলওয়ে সচিব ড.হুমায়ুন কবির। বাংলাদেশ-ভারতের বন্ধুত্বের অংশীদারের স্বাক্ষর হিসেবে ভারত সরকার বাংলাদেশ রেলওয়ে উন্নয়নের জন্য ২০ টি রেল ইঞ্জিন উপহার দেয়।

উপহার স্বরূপ ভারত সরকারের দেওয়া ২০ টি ডিজেল চালিত ট্রেন ইঞ্জিন দর্শনা আন্তর্জাতিক রেলওয়ে স্টেশন হতে গ্রহণ করা হয়। এ ইঞ্জিন গ্রহণকালে ভারত থেকে আগত অতিথিদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়।

দর্শনা আন্তজার্তিক রেলওয়ে ষ্টেশনের ব্যবস্থাপক জানান, ভারতের দেওয়া উপহার স্বরূপ ২০টি রেলের ডিজেল চালিত ইঞ্জিন দর্শনা আন্তর্জাতিক রেলওয়ে স্টেশন হতে আনুষ্টানিক ভাবে গ্রহণ করা হয়। এ গ্রহণ অনুষ্টানে উপস্থিত ছিলেন, রেলওয়ে বোর্ড ইন্ডিয়ার ট্রাফিক ইন্সপেক্টর অশোক কুমার বিশ্বাস, দর্শনা রেলওয়ে ষ্টেশনে ঈশ্বরর্দী লকোমোটিভ বিভাগের সিনিয়র সাব অ্যাসিষ্টেন্ট ইঞ্জিনিয়ার সরেক জামাল এর কাছে বুঝিয়ে দেন। বাংলাদেশ রেলওয়ে ও রেলওয়ে বোর্ড ইন্ডিয়ার উদ্ধর্তন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। ইশ্বরর্দী থেকে পরীক্ষা নিরিক্ষা শেষে ইঞ্জিন গুলো পন্য পরিবহনে ব্যবহার করা হবে।

এ আনুষ্টানিক রেল ইঞ্জিন গ্রহন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, চুয়াডাঙ্গা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান মঞ্জু, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) চুয়াডাঙ্গা মোঃ নাজমুল হামিদ রেজা, দামুড়দা উপজেলা চেয়ারম্যান আলী মনসুর বাবু,দর্শনা পৌর মেয়র আতিয়ার রহমান হাবু, চুয়াডাঙ্গা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু তারেক,রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনী (পাকশী) চিপ কমান্ডেন্ট আশরাফুল ইসলাম,কমান্ডের মোর্শেদ আলম, রেলওয়ে পশ্চিম জোনের চিপ অফ প্রধান যন্ত্র প্রকৌশলী কুদরত ই- খুদা, চিপ অপরেটিং সুপারেনটেনডেন্ট আহসানুল্লাহ ভূঁইয়া, চিপ কমার্শিয়াল ম্যানেজার সুজিত কুমার বিশ্বাস, প্রধান প্রকৌশলী আসাদুল হক, চিপ সিগন্যাল টেলিকমিউনিকেসন মিজানুর রহমান,চিপ কমান্ডেন্ট আসাবুল ইসলাম, প্রধান নির্বাহী রফিকুল ইসলাম, পরিচালক লোকো তসলিম আহমেদ, বিভাগীয় রেলের ব্যবস্থাপক খান শাহ সুফি নুর মোহাম্মদ, দর্শনা থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি ফেরদৌস ওয়াহিদ প্রমুখ।

Views: 12