মঙ্গলবার থেকে আরও ৭১১ বাসে ই-টিকিটিং চালু

মোহাম্মদপুর-আজিমপুর ভিত্তিক আরও ৭১১ বাসে ই-টিকিটিং চালুর ঘোষণা দিয়েছে ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি। মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) ১৫টি কোম্পানির বাসে এই সেবা চালু হবে। সোমবার (৯ জানুয়ারি) মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েত উল্লাহ এ ঘোষণা দেন। এ উপলক্ষ্যে সমিতির বাংলা মোটরের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

খন্দকার এনায়েত উল্লাহ বলেন, আমরা পরীক্ষামূলকভাবে গত ২২ সেপ্টেম্বর মিরপুরভিত্তিক ৮ পরিবহন কোম্পানি এবং ১৩ নভেম্বর ২২ পরিবহন কোম্পানিসহ মোট ৩০টি কোম্পানির ১৩ হাজার ৬৪৩টি বাসে ই-টিকিটিং পদ্ধতি চালু করেছি। উল্লেখিত ৩০টি কোম্পানির ৭০ শতাংশ থেকে ৭৫ শতাংশ বাসে ই-টিকিটিং পদ্ধতি কার্যকর হয়েছে। বাকি গাড়িতে কার্যকর করার লক্ষ্যে ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির তিনটি ভিজিল্যান্স টিম প্রতিদিন কার্যক্রম পরিচালনা করছে। সমিতির নিয়োগকৃত স্পেশাল চেকার প্রতিদিন রোডে মনিটরিং করছে। যেসব গাড়ি এখনও নিয়মের মধ্যে আসেনি তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

তিনি বলেন, যাত্রীদের অভিযোগ ই-টিকিটিংয়ের টিকিটে দূরত্ব অনুযায়ী কি.মি. উল্লেখ নেই। চার্ট তৈরির জন্য আমরা বিআরটিএ-কে অনুরোধ জানিয়েছি। ভাড়ার চার্ট তৈরি হলে আমরা ডিভাইসে কি.মি. উল্লেখ করে দেবো।

মোহাম্মদপুর-আজিমপুর ভিত্তিক যেসব কোম্পানির বাসে ই-টিকিট চালু হচ্ছে সেগুলো হলো– মেসার্স ভূঁইয়া এন্টারপ্রাইজ, স্বাধীন লাইন পরিবহন, দেওয়ান এন্টারপ্রাইজ, মালঞ্চ পরিবহন, তরঙ্গ প্লাস ট্রান্সপোর্ট লি., আলিফ এন্টারপ্রাইজ (১) (রুট-এ-১৪১) আলিফ এন্টারপ্রাইজ, অভিনন্দন ট্রান্সপোর্ট লি., বিকাশ পরিবহন, গাবতলী এক্সপ্রেস লি., মেঘলা ট্রান্সপোর্ট কোং লি., ভিআইপি অটো মোবাইলস লি. রমজান আলী এন্টারপ্রাইজ মিডলাইন পরিবহন লি. ও স্বপ্ন পরিবহন লি.।