১৩ অক্টোবর থেকে নতুন দুই রুটে চলবে ‘নগর পরিবহন’

২০২১ সালের ২৬ ডিসেম্বর থেকে পরীক্ষামূলকভাবে শুরু হওয়া ঢাকা নগর পরিবহনের মাধ্যমে ২৪ লক্ষাধিক ব্যক্তিকে যাত্রীসেবা দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস। মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান কার্যালয় নগর ভবনের বুড়িগঙ্গা হলে বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির ২৪তম সভা শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ডিএসসিসির মেয়র ও বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির সভাপতি ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এসব তথ্য জানান।

মেয়র বলেন, ‌‘২০২১ সালের ২৬ ডিসেম্বর আমরা দীর্ঘদিনের জটিলতা নিরসন করে ঢাকা নগর পরিবহনের প্রথম ২১ নম্বর যাত্রাপথ আমরা শুরু করি। আগস্ট মাস পর্যন্ত এই যাত্রাপথে আমরা ২৪ লাখের বেশি ঢাকাবাসীকে আমরা এই যাত্রীসেবা দিতে পেরেছি। এতে ঢাকা নগর পরিবহনের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিআরটিসি এবং বিভিন্ন মালিক প্রায় ৩ কোটি ৬০ লাখ টাকা আয় করেছেন। এর মাধ্যমে প্রমাণ হয় যে আমরা সঠিক পথে এগোচ্ছি। যদিও এখনো অনেক প্রতিবন্ধকতা রয়েছে। তবে ধাপে ধাপে সেগুলো সমাধান করে এগিয়ে চলছি।’

আগামী ১৩ অক্টোবর নতুন দুটি যাত্রাপথে ঢাকা নগর পরিবহন চালু করা হচ্ছে জানিয়ে মেয়র বলেন, ‘২২ ও ২৬ নম্বর নতুন যাত্রাপথে আগামী ১৩ অক্টোবর নতুন বাস চালু হবে। একই সময় ২৩ নম্বর যাত্রাপথ চালু হওয়ার কথা থাকলেও সেটির কাজ বাকি থাকায় ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়েছে। নতুন এসব যাত্রাপথে সব নতুন বাস দিয়ে সেবা চালু হবে। পুরোনো ২১ নম্বর রুটে নতুন বাস সংযুক্ত করব। এ ছাড়া বাসের শৃঙ্খলা ফেরাতে ২৫ থেকে ২৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চিরুনি অভিযান চলবে।’

ঘোষিত ৩ যাত্রাপথে প্রয়োজনীয় অবকাঠামো উন্নয়ন সম্পন্ন হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এরই মধ্যে তিনটি যাত্রাপথের প্রয়োজনীয় অবকাঠামো উন্নয়ন প্রায় শেষ করেছি। দক্ষিণ সিটির আওতায় মাত্র তিনটি যাত্রীছাউনি নির্মাণ বাকি আছে। এর মধ্যে দুটি এমআরটি প্রকল্পের কারণে শাহবাগ মোড়ের কাছে। আরেকটি সচিবালয়ের কাছে। তবে এটি সম্পন্ন হয়ে যাবে। বাকি দুটিতে সামান্য সময় লাগবে।’

এ সময় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘ঢাকা শহরে গণপরিবহন সেবায় দীর্ঘদিনের পুঞ্জীভূত সমস্যা রয়েছে। এই শহরে ‘নগর পরিবহন’ চালু করাটা সত্যিই চ্যালেঞ্জিং একটি কাজ। আমরা দুই মেয়র আন্তরিকতার সঙ্গে চেষ্টা করছি এর সফল বাস্তবায়নের জন্য। পাইলট প্রকল্প হিসেবে একটি রুটে চালু করে ইতোমধ্যে আমরা চ্যালেঞ্জগুলো চিহ্নিত করেছি। এই অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে নতুন রুটে কার্যক্রম শুরু করছি। মানসম্মত সেবার কারণে এ সেবায় জনগণের ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘২২, ২৩ ও ২৬—এই তিনটি রুটে ২০০ নতুন বাস দিয়ে চলবে নগর পরিবহন। বাসগুলোর নির্মাণকাজ চলমান। সম্পূর্ণ নতুন বাস নির্মাণের জন্য একটু সময় লাগছে। আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর নতুন বাসের গুণগত মান ও বাস নির্মাণকাজের অগ্রগতি পরিদর্শনে যাব আমরা। আধুনিক, মানসম্পন্ন ও আরামদায়ক বাস দিয়েই নগর পরিবহন চলবে। আশা করছি সবার সহযোগিতায় দ্রুত নগরবাসীকে মানসম্মত সেবা দিতে পারবো।’

নতুন যেসব রুটে চলবে নগর পরিবহন

২২ নম্বর রুট
ঘাটারচর-ওয়াশপুর-বসিলা-মোহাম্মদপুর টাউন হল-আসাদ গেট-ফার্মগেট কাওরানবাজার-শাহবাগ-কাকরাইল-ফকিরাপুল-মতিঝিল-টিকাটুলী-সায়েদাবাদ-যাত্রাবাড়ী-কোনাপাড়া-ডেমরা স্টাফ কোয়ার্টার।

২৩ নম্বর রুট
ঘাটারচর-ওয়াশপুর-বসিলা-মোহাম্মদপুর-জাপান গার্ডেন সিটি-শ্যামলী-কলেজ গেট-আসাদ গেট-কলাবাগান-সায়েন্স ল্যাব-শাহবাগ-মৎস্য ভবন-প্রেসক্লাব-গুলিস্তান (জিরো পয়েন্ট)-দৈনিক বাংলা-রাজারবাগ-কমলাপুর-ধলপুর-যাত্রাবাড়ী-শনির আখড়া-রায়েরবাগ-মাতুয়াইল-সাইনবোর্ড-চিটাগং রোড।

২৬ নম্বর রুট
ঘাটারচর-ওয়াশপুর-বসিলা-মোহাম্মদপুর-টাউন হল-আসাদ গেট-কলাবাগান-সায়েন্স ল্যাব-নিউ মার্কেট-আজিমপুর- পলাশী-চানখারপুল-ফ্লাইওভার হয়ে-পোস্তগোলা কদমতলী।

সভায় অন্যদের মধ্যে ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের নির্বাহী পরিচালক সাবিহা পারভীন, বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট করপোরেশনের চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম, ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদ আহাম্মদ, বিআরটিএর চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ মজুমদার, গণপরিবহন বিশেষজ্ঞ ড. এস এম সালেহ উদ্দিন, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ, ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সভাপতি আজমল উদ্দিন আহমেদ, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনারের প্রতিনিধিসহ কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।