পদ্মা সেতুতে রেল ট্র্যাক বসছে ৩০ জুলাই

পদ্মা সেতুতে শুরু হচ্ছে রেল ট্র্যাক বসানোর কাজ। ‍মুন্সিগঞ্জের মাওয়া রেলস্টেশন থেকে দেশের দক্ষিণে রেল চালু করতে ৩০ জুলাই মূল সেতুতে ওই রেল ট্র্যাক বসানো শুরু হবে। এই রুটে আঞ্চলিক, আন্তর্জাতিক ব্রডগেজ মালবাহী ও কন্টেইনার ট্রেন চলবে। তাই আধুনিকায়নের অংশ হিসেবে দেশের প্রথম সাসপেনডেন্ট প্ল্যাটফর্ম তৈরি হয়েছে মাওয়া রেলস্টেশনে।

জানা গেছে, পদ্মা সেতু ঘিরে এবার রেল নেটওয়ার্ক বদলে দিতে চলছে বিশাল কর্মযজ্ঞ। দেশের প্রথম এই সাসপেনডেন্ট প্ল্যাটফর্ম তৈরি হয়েছে মাওয়া রেলস্টেশনে। মাওয়া প্রান্তের এই রেলস্টেশনে সিরামিক ইটে তৈরি স্টেশন ভবন জৌলুস ছড়াচ্ছে। গ্যাংহাট ও ডরমিটরি ভবন নির্মাণ শেষ। তৈরি হচ্ছে টিকিট কাউন্টারসহ ভেতরে সাইডের সাসপেনডেন্ট প্ল্যাটফর্ম। এরপরই বসবে আধুনিক সিগনালিং সিস্টেম। বৈচিত্র্যপূর্ণ মাওয়া রেলস্টেশনের কাজের অগ্রগতি ৭৯ শতাংশ। আর সেতুর জাজিরা প্রান্তের পদ্মা রেলস্টেশনের অগ্রগতি ৭১ শতাংশ।

পদ্মা সেতু রেল লিংক প্রকল্পের জুনিয়র প্রকৌশলী মিল্টন সরকার জানান, আমরা আশাবাদী, নির্ধারিত সময়ের আগেই আমরা এ কন্সট্রাকশনের কাজ শেষ করতে পারব।

ঢাকা থেকে যশোর পর্যন্ত ১৭২ কিলোমিটার রেলপথে থাকছে ২০টি স্টেশন। তার মধ্যে ১৪টি স্টেশনই নতুন বলে জানান পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্প পরিচালক আফজাল হোসেন।

তিনি বলেন, স্টেশনের কাজ সন্তোষজনক রয়েছে; অগ্রগতি প্রায় ৫০ ভাগ। অবশিষ্ট রেলস্টেশনের কাজও নির্দিষ্ট সময়ে শেষ করা হবে।