বাগেরহাটে জমিসহ ঘর পাচ্ছে ৫০০ ভূমিহীন পরিবার

‘মুজিবর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশের একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না’ প্রধানমন্ত্রীর এই নির্দেশনা অনুযায়ী দেশের অন্যান্য জেলার মতো এবার বাগেরহাটে আরও ৫০০ ভূমি ও গৃহহীন পরিবার পাচ্ছে ২ শতাংশ জমিসহ ঘর।

বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) তাদের কাছে এসব ঘর হস্তান্তর করা হবে।

এদিন গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এসব জমি ও ঘর হস্তান্তর করবেন। তিনি রামপাল উপজেলার গৌরম্ভা আশ্রায়ন কেন্দ্রে ভার্চ্যুয়ালি যুক্ত হয়ে উপকার ভোগীদের সঙ্গে কথা বলবেন।

মঙ্গলবার (১৮ জুলাই) বিকেলে তৃতীয় পর্যায়ের দ্বিতীয় ধাপে জমি ও ঘর প্রদান কার্যক্রমের উদ্বোধন নিয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আজিজুর রহমান।

তিনি জানান, দুই রুমের পাকা টিনসেড প্রতিটি ঘর নির্মাণে খরচ হয়েছে ২ লাখ ৪৭ হাজার ৪০০ টাকা। এবার তৃতীয় পর্যায়ের দ্বিতীয় ধাপে বাগেরহাটে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসা সুন্দরবনের আত্মসমর্পন করা ১৩ বনদস্যুকে এই ঘর দেওয়া হচ্ছে। এরই মধ্যে বাগেরহাটের ৯টি উপজেলার ২ হাজার ১৩৭টি ভূমি ও গৃহহীন পরিবারের মধ্যে ঘর হস্তান্তর করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ হাফিজ আল আসাদ, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মুহাম্মদ মুছাব্বেরুল ইসলাম, বাগেরহাট প্রেসক্লাবের সভাপতি নীহার রঞ্জন সাহা, সাধারণ সম্পাদক তালুকদার আব্দুল বাকীসহ জেলায় কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট, ইলেক্ট্রনিক ও টেলিভিশন চ্যানেলের সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।