স্বাদু পানির মাছ উৎপাদনে বিশ্বে তৃতীয় বাংলাদেশ

বিশ্বে স্বাদু পানির মাছ উৎপাদনে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। ভারত ও চীনের পরই বাংলাদেশের অবস্থান। আর চাষের মাছ উৎপাদনেও বাংলাদেশের অবস্থান একই।

এদিকে বিশ্বে স্বাদুপানির মাছ উৎপাদন বৃদ্ধিতে শীর্ষ চারটি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ ছাড়া অন্য দেশগুলো হলো- ভারত, মিয়ানমার ও উগান্ডা।

জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (এফএও) ‘দ্য স্টেট অব ওয়ার্ল্ড ফিশারিজ অ্যান্ড অ্যাকুয়াকালচার-২০২২’ শিরোনামে গত শুক্রবার প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এই তথ্য উঠে এসেছে। প্রতি দুই বছর পরপর এ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।

ঐ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নানা প্রতিবন্ধকতার মাঝেও চাষের মাছ উৎপাদনে বিশ্বে তিনটি দেশ উদাহরণ সৃষ্টি করছে। দেশগুলো হলো এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশ ও ভিয়েতনাম এবং আফ্রিকায় মিসর।

বাংলাদেশ সম্পর্কে বলা হয়েছে, বিশ্বে স্বাদুপানির মাছের ১১ শতাংশ এখন বাংলাদেশে উৎপাদিত হচ্ছে। যার মোট পরিমাণ প্রায় ১৩ লাখ টন।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, স্বাদুপানির পাখনাযুক্ত মাছ (ফিনফিশ) উৎপাদনের দিক থেকে বাংলাদেশ বিশ্বে দ্বিতীয় অবস্থানে আছে। এর মধ্যে ইলিশও আছে। বাংলাদেশে মুক্ত জলাশয় থেকে মোট ১৩ লাখ টন মাছ আহরণ করা হয়। এর মধ্যে ইলিশ প্রায় ছয় লাখ টন। ইলিশ মাছ উৎপাদনে বাংলাদেশ বিশ্বে ১ নম্বর অবস্থানে আছে।

তবে সামুদ্রিক মৎস্য আহরণে বাংলাদেশ ২৮তম অবস্থানে রয়েছে। বাংলাদেশ সমুদ্র থেকে ৬ লাখ ৭০ হাজার টন মাছ সংগ্রহ করে। সামুদ্রিক মাছ আহরণে বিশ্বের শীর্ষ পাঁচ দেশ হলো- চীন, ইন্দোনেশিয়া, পেরু, রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র।