সরিষার ভালো দাম পেয়ে কৃষকের মুখে হাসি

ঠাকুরগাঁওয়ে এবার সরিষার ফলন ভালো হয়েছে। পাশাপাশি বাজারে সরিষার দামও ভালো। প্রতি মণ কাঁচা সরিষা দুই হাজার পাঁচ শ’ থেকে দুই হাজার সাত শ’ টাকায় বিক্রি করছেন কৃষক। আর শুকনা সরিষা তিন হাজার তিন শ’ থেকে তিন হাজার সাত শ’ টাকা মণ দরে বিক্রি হচ্ছে। এতে কৃষকের মুখে হাসি ফুটেছে।

সদর উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, চলতি মৌসুমে উপজেলায় ১৬ শ’ ৩০ হেক্টর জমিতে সরিষা লক্ষ্যমাত্রা চাষের ধরা হয়। লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে আবাদ বেশি হয়েছে ১০ হেক্টর। সরিষা উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ২৪ হাজার ৬০ মেট্রিক টন।

এ অঞ্চলের কৃষকেরা সাধারণত ছয়টি জাতের উচ্চফলনশীল সরিষা আবাদ করে থাকেন। সেগুলো হলো (উফশী) জাতের বারি সরিষা- ৯, বারি সরিষা- ১১, বারি সরিষা- ১৪. বারি সরিষা- ১৫, স্থানীয় উন্নত জাতের টরি- ৭ ও ভারতীয় জাত বাশরি। রামনাথ, ফাড়াবাড়ি, লাহিড়ী হাটে গিয়ে দেখা যায়, চাষিরা দুই হাজার পাঁচ শ’ টাকা থেকে দুই হাজার সাত শ’ টাকা মণ দরে কাঁচা সরিষা বিক্রি করেছেন। আর এখন শুকনা সরিষা বিক্রি হচ্ছে তিন হাজার তিন শ’ থেকে তিন হাজার সাত শ’ পর্যন্ত।

সদর উপজেলার দক্ষিণ বঠিনা গ্রামের কৃষক নারায়ণ চন্দ্র এক বিঘা জমিতে সরিষা আবাদ করেছেন। তার খরচ হয় প্রায় চার হাজার টাকা। আর সরিষা পেয়েছেন ছয় মণ।

স্থানীয় বাজারে সেই সরিষা তিনি বিক্রি করেছেন ১৫ হাজার ২০০ টাকায়। সদর উপজেলার আখানগর গ্রামের কৃষক হাসান আলী তার জমিতে আবাদ করা পাঁচ মণ সরিষা বিক্রি করেছেন বারো হাজার টাকায়। হাসান আলী বলেন, আমন ও বোরো চাষের মাঝে আবাদ করার কারণে সরিষায় সামান্য ইউরিয়া ছাড়া আর কোনো সারের প্রয়োজন হয় না। বীজ বোনার দুই মাসের মধ্যে সরিষার ফসল ঘরে তোলা যায় বলে অন্য আবাদের সমস্যা হয় না। চারা গজানোর পর আগাছা পরিষ্কার করা ছাড়া তেমন কোনো শ্রমেরও দরকার হয় না।

উপজেলার রুহিয়া ইউনিয়নের কৃষক সতীশ বর্মণ বলেন, আগে তিনি শুধু আলুর চাষ করতেন। কিন্তু তিন বছর ধরে সরিষা চাষ করে আলুর চেয়ে বেশি লাভবান হয়েছেন। এ কারণে এখন তিনি জমিতে সরিষার চাষ করছেন। এ বছর দুই একর জমিতে সরিষার চাষ করে লাভ হয়েছে প্রায় ৭০ হাজার টাকা।

এ বিষয়ে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষ্ণ রায় বলেন, অনুকূল আবহাওয়া ও নিবিড় পরিচর্যার কারণে এ এলাকার কৃষক সরিষা আবাদ করে বেশ ভালো ফলন পেয়েছেন। লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি জমিতে সরিষার আবাদও হয়েছে। ফলন ভালো হওয়ায় কৃষকেরা সরিষা চাষে আগ্রহ দেখাচ্ছেন। কৃষি বিভাগ এরই মধ্যে ব্যাপক উদ্যোগ নিয়েছে। বাজারমূল্য ভালো থাকলে সরিষা চাষের দিকে কৃষকেরা আরো ঝুঁকবেন।

Views: 1