রেলের পশ্চিমাঞ্চলে যুক্ত হচ্ছে ৪০ অত্যাধুনিক ইঞ্জিন

বাংলাদেশ রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলে নতুনভাবে সংযুক্ত হবে ৪০টি অত্যাধুনিক ইঞ্জিন। এরই মধ্যে রাজশাহীতে ঈশ্বরদী থেকে ট্রেনের অত্যাধুনিক ইঞ্জিন এসে পৌঁছেছে।

বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) দুপুর সাড়ে ১২টায় নতুন ইঞ্জিনটি প্রথমবারের মতো রাজশাহী স্টেশনে ট্রায়ালে নিয়ে আসা হয়। দুপুর সোয়া দুইটার দিকে ইঞ্জিনটি পুনরায় ফেরত যায় ঈশ্বরদী জংশনে। রাজশাহী রেলওয়ে জেনারেল ম্যানেজার (জিএম) অসীম কুমার তালুকদার এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, ইঞ্জিনগুলো যুক্তরাষ্ট্রের অত্যাধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি। আমেরিকার সঙ্গে মোট ৪০টি অত্যাধুনিক ইঞ্জিনের চুক্তি হয়েছে। এর মধ্যে ২ লটে ১৬টি দেশে এসে পৌঁছেছে। ১৬টি ইঞ্চিনের মধ্যে ৭টি ইঞ্জিন প্রস্তুত হয়েছে যার ট্রায়াল চলছে। পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের ঈশ্বরদীতে মোট ৩টি ইঞ্জিন এসেছে। প্রতিদিনই একটি করে আসবে।

এগুলোর ট্রায়াল চলবে রাজশাহী থেকে ঈশ্বরদী পর্যন্ত। তবে প্রথম যে ইঞ্জিনটির পুরো কাজ সম্পন্ন হয়েছে তার সঙ্গে লং রুটের একটি ট্রায়াল দেওয়া হবে।

রেলসূত্র আরও জানায়, এ অত্যাধুনিক ইঞ্জিন ৩ হাজার ৩০০ হর্স পাওয়ার সম্পন্ন। এর সর্বোচ্চ গতি প্রতি ঘণ্টায় ১৪০ কিলোমিটার।

রেল কর্তৃপক্ষ বলছে, দেশের রেললাইনের গড় গতিসীমার তুলনায় এই গতি বেশি। ইঞ্জিনের সামনে ও পেছনে রয়েছে সিসি ক্যামেরা। এসি সংযুক্ত রয়েছে চালক কক্ষে। সামনে স্পষ্ট দেখার জন্য ইঞ্জিনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে এলইডি লাইট।

নতুন ইঞ্জিনের বিষয়ে ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, আমেরিকান প্রযুক্তিতে তৈরি এসব ইঞ্জিন ৫ বছরের মধ্যেও কিছুই হবে না। তারপরও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ইঞ্জিনের সঙ্গে একজন করে জনবল দিয়েছে। প্রাথমিক অবস্থায় এর কোনো ত্রুটি দেখা দিলে তিনিই তা নির্ণয় করে সংশোধন করবেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে কপোতাক্ষ ট্রেনের সঙ্গে এ নতুন ইঞ্জিনটি যুক্ত করা হয়েছে। মূলত এটি ঈশ্বরদী পর্যন্ত ট্রায়াল চলছে।

রেলওয়ের এ ব্যবস্থাপনা পরিচালক আরও বলেন, পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের সঙ্গে এসব অত্যাধুনিক ইঞ্জিন যুক্ত হওয়ায় রেলের পরিসেবা আরও বৃদ্ধি পেয়েছে। ইঞ্জিনগুলো খুব পাওয়ারফুল হওয়ায় যাত্রীরা নির্বিঘ্নে যাত্রা করতে পারবে। আবার পুরনোর তীক্ত অভিজ্ঞতার সঙ্গে অত্যাধুনিক এ ইঞ্জিনটি চালিয়ে লোকো মাস্টাররাও বেশ স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করবেন ।