নওগাঁয় আলুর বাম্পার ফলন

জেলায় চলতি মৌসুমে আলুর বাম্পার ফলন হয়েছে। ইতিমধ্যে জেলায় জমি থেকে আলু উত্তোলন প্রায় শেষ হয়েছে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর নওগাঁর উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মোঃ শামসুল ওয়াদুদ জানিয়েছেন, ২২ মার্চ পর্যন্ত জেলার প্রায় ৯৮ শতাংশ জমির আলু উত্তোলন সম্পন্ন হয়েছে।

সূত্র জানিয়েছে, কৃষি বিভাগএ বছর জেলায় প্রতি হেক্টর জমি থেকে ১৬ দশমকি ৬২ মেট্রিক টন আলু উৎপাদনের সম্ভাবনার কথা বলেছিল। সেখানে উৎপাদিত হয়েছে প্রতি হেক্টরে ১৮ দশমিক ০১ মেট্রিক টন। সেই হিসেবে কৃষি বিভাগ মনে করছে এ বছর জেলায় আলুর বাম্পার ফলন হয়েছে।

এ জেলায় মোট আলুর আবাদ হয়েছে ২২ হাজার ২শ’ ৬০ হেক্টর জমিতে। উপজেলা ভিত্তিক আলু চাষের পরিমাণ হচ্ছে সদর উপজেলায় ২ হাজার ৩শ’ ৫০ হেক্টর, রানীনগর উপজেলায় ১ হাজার ৪শ’ ১০ হেক্টর, আত্রাই উপজেলায় ২ হাজার ৭শ’ ৩০ হেক্টর, বদলগাছি উপজেলায় ৩ হাজার হেক্টর, মহাদেবপুর উপজেলায় ১ হাজার ৭শ’ ৯০ হেক্টর, পত্নীতলা উপজেলায় ১ হাজার ৮শ’ ৪০ হেক্টর, ধামইরহাট উপজেলায় ২ হাজার ৩শ’ ২৫ হেক্টর, সাপাহার উপজেলায় ১ হাজার ৬৫ হেক্টর, পোরশা উপজেলায় ৪শ’ ৩০ হেক্টর, মান্দা উপজেলায় ৩ হাজার ৮শ’ ৩০ হেক্টর এবং নিয়ামতপুর উপজেলায় ১ হাজার ৪শ’ ৯০ হেক্টর।

এ মৌসুমে জেলায় মুলত ডায়মন্ড, কার্ডিনাল, এ্যাষ্ট্রোভিক, রোমানা, লাল পাপড়ী, সাদা পাপড়ী এবং হাগড়াই জাতের আলু চাষ করেছেন কৃষকরা।

কৃষি বিভাগ এ বছর প্রতি হেক্টর জমি থেকে ১৬ দশমিক ৬২ মেট্রিক টন হিসেবে চাষকৃত মোট জমি থেকে ৩ লক্ষ ৬৯ হাজার ৯৬১দশমিক ২০ মেট্রিক টন আলু উৎপাদনের প্রত্যাশা করেছিল। জমি থেকে আলু উত্তোলনের পর দেখা গেছে হেক্টর প্রতি ১৮ দশমকি ০১ মেট্রিক টন হিসেবে ৪ লক্ষ ৯০২ দশমিক ৬০ মেট্রিক টন আলু উৎপাদিত হচ্ছে। কৃষি বিভাগের কাঙ্খিত প্রত্যাশার চেয়ে ৩০ হাজার ৯৪১ দশমকি ৪০ মেট্রিক টন বেশী আলু উৎপাদিত হয়েছে।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে এ জেলার আলু বিদেশে রপ্তানী হওয়ার সুযোগ ইতিমধ্যেসৃষ্টি হয়েছে। এর ফলে কৃষকরা তাঁদের উৎপাদিত আলুর নায্য মুল্য পাচ্ছেন।