খানজাহান আলী বিমানবন্দরের কাজ শুরু শিগগিরই: বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী বলেছেন, খানজাহান আলী বিমান বন্দরের নির্মাণ কাজ শিগগিরই শুরু হবে। করোনাসহ নানা কারণে এতদিন নির্মাণ কাজ বন্ধ ছিল।

১৫টি দেশের রাষ্ট্রদূত ও আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধিদের নিয়ে ‘মুজিব’স বাংলাদেশ ফ্যামিলাইরিজেশন ট্যুর’-এ সুন্দরবন ও ষাটগম্বুজ মসজিদ ভ্রমণের পর মঙ্গলবার (২২ মার্চ) বিকালে তিনি এ কথা জানান প্রতিমন্ত্রী। ভ্রমণের আয়োজন করে বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড।

মাহবুব আলী বলেন, সব বিমানবন্দরকে আধুনিকায়ন করা হচ্ছে। সেই সঙ্গে বাংলাদেশের পর্যটন খাতকে বিশ্বমানে উন্নীত করার চেষ্টা চলছে। পর্যটনের সম্ভাবনার জায়গায় আমরা দ্রুত অগ্রসর হচ্ছি।

তিনি আরও বলেন, বাগেরহাটের লোকজন অত্যন্ত সৌভাগ্যবান। বিশ্ব ঐতিহ্যের বড় দুটি স্থানই পড়েছে বাগেরহাটে। একটি সুন্দরবন, অন্যটি ষাটগম্বুজ মসজিদসহ খানজাহানের অন্যান্য স্থাপনা। দেশের ট্যুরিজমকে প্রমোট ও অবারিত করার জন্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জোরালোভাবে কাজ চলছে। তারই ধারাবাহিকতায় এই ট্যুর পরিচালিত হয়েছে।

এ সময় বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোকাম্মেল হোসেন, বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আজিজুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক খোন্দকার রিজাউল করিমসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিনিধি দলে ইন্দোনেশিয়া, ইরাক, ইতালি, থাইল্যান্ড, দক্ষিণ করিয়া, ফিলিপিন, নেপাল, পাকিস্থানসহ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত ও দুটি সংস্থার প্রতিনিধিসহ ৬০ জন অংশ নেন। বাগেরহাটের মোংলা দিয়ে সুন্দরবন ভ্রমণ শেষে বিমান ও পর্যটন মন্ত্রীর নেতৃত্বে প্রতিনিধি দলটি বাগেরহাটের ঐতিহাসিক ষাটগম্বুজ মসজিদ ও বাগেরহাট জাদুঘর ঘুরে দেখেন।