প্রতিটি জেলায় মানসিক স্বাস্থ্য ইউনিট করা হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, দেশের সব জেলাতেই একটি করে আলাদা মানসিক স্বাস্থ্য ইউনিট করা হবে। সোমবার দুপুরে রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার স্পেশাল ইনিশিয়েটিভ ফর মেন্টাল হেলথ বিষয়ক এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ কথা বলেন।

জাহিদ মালেক আরো বলেন, মানসিক স্বাস্থ্যের বিষয়টিকে সরকার আর হালকাভাবে নিচ্ছে না। এর গুরুত্ব অনুধাবন করে সব জেলাতে একটি করে আলাদা মানসিক স্বাস্থ্য ইউনিট করার পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া দক্ষিণ আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন নিয়ে যদি সবাই নিজ থেকে সতর্ক না হয়, তাহলে এটিকে ঠেকিয়ে রাখা সম্ভব নয়।

ওমিক্রন নিয়ে সবাইকে আরো সচেতন থাকার আহ্বান জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ওমিক্রন মোকাবিলায় হাসপাতালগুলোকে আপগ্রেড করা হচ্ছে।

মন্ত্রী বলেন, আমাদের প্রস্তুতি রয়েছে, কিন্তু ওমিক্রণে আক্রান্ত দেশগুলোতে প্রতিনিয়ত লোকজন আসা যাওয়া করছে। এই আসা যাওয়ার কারণেই ভয় হচ্ছে।

দুজন নারী ক্রিকেটারের শরীরে ওমিক্রন শনাক্ত হওয়া প্রসঙ্গে জাহিদ মালেক বলেন, বাংলাদেশের নারী ক্রিকেট দল জিম্বাবুয়েতে গিয়েছিল। সেখান থেকে ফেরার পর তাদেরকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। তারপর পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দুজনের দেহে ওমিক্রন শনাক্ত হয়। তারা উভয়েই সুস্থ আছেন। এখন পর্যন্ত তাদের মাধ্যমে অন্য কারো দেহে ওমিক্রন ছড়ায়নি।

তিনি বলে, আমাদের টিকা নিয়ে কোনো শঙ্কা নেই। ৩০ কোটি ডোজ টিকা সংগ্রহ করার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। ৪ কোটি ডোজ হাতে মজুদ আছে।

বুস্টার ডোজ প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, আমরা বুস্টার ডোজের বিষয়ে কাজকর্ম করছি। ষাটোর্ধ্ব ও ফ্রন্টলাইনারদের বুস্টার ডোজ দেওয়ার বিষয়ে আমাদের পরিকল্পনা রয়েছে। আগামী ৭ থেকে ১০ দিনের মধ্যেই বুস্টার ডোজ দেওয়া শুরু হবে। বুস্টার শুরুর আগে আমাদের সংখ্যাটি নির্ধারণ করতে হবে। এছাড়া আরো কিছু কাজকর্ম আছে। এ মুহূর্তে আমরা সুরক্ষা অ্যাপটিকে আপগ্রেডের কাজ করছি।

স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এএইচএম এনায়েত হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বাংলাদেশ প্রতিনিধি ডা. বার্ধন জং রানা, জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক ডা. বিধান রঞ্জন রায় পোদ্দার, স্বাস্থ্য অধিদফতরের লাইন ডিরেক্টর অধ্যাপক ডা. রোবেদ আমিন।