স্পট রেজিস্ট্রেশনে ষাটোর্ধ্বদের টিকা

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে প্রতি সপ্তাহে একদিন ষাটোর্ধ্ব বয়সীদের বিশেষ ব্যবস্থায় টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে সরকার। সপ্তাহের নির্দিষ্ট ওই দিন নিবন্ধিত বা অনিবন্ধিত ৬০ বছরের বেশি বয়সীদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে স্পট রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে টিকা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় এক ভিডিও বার্তায় এ তথ্য জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম।

তিনি বলেন, ‘আপনারা জানেন আমাদের যে পর্যালোচনা, সেখানে আমরা দেখতে পেয়েছি ষাটোর্ধ্ব জনসংখ্যার গোষ্ঠী বেশিরভাগ ক্ষেত্রে করোনা সংক্রমিত হয়েছে এবং তাদের মধ্যে মৃত্যুর সংখ্যা বেশি। এটা মাথায় রেখেই আমরা নতুন টিকাদান পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছি। আমরা টিকা দেওয়ার সময় মাথায় রাখব যারা বয়স্ক তারা যেন অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে এই টিকা পান।’

শিশুদের টিকার বিষয়ে স্বাস্থ্য মহাপরিচালক বলেন, ‘শিশুদের টিকা দেওয়ার ব্যাপারটা নিয়ে মন্ত্রী আমাদেরকে বলেছেন। এ ব্যাপারটা নিয়ে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। তবে ব্যাপারটা অত্যন্ত সংবেদনশীল। আমরা চেষ্টা করছি কীভাবে দ্রুততম সময়ে শিশুদেরকে টিকার আওতায় আনা যায়। আপনারা জানেন আমাদের স্কুলগুলো খুলে দেওয়া হয়েছে। কাজে এ কাজটি দ্রুততম সময়ে করার জন্য আমাদের ওপর নির্দেশনা আছে। আমরা এ ব্যাপারে কাজ করে যাচ্ছি। আমরা সুনির্দিষ্ট তথ্য উপাত্তের ভিত্তিতে এ কার্যক্রম শুরু করব।’

খুরশীদ আলম আরও বলেন, ‘আমাদের হাতে পর্যাপ্ত পরিমাণ টিকা মজুত রয়েছে। ভবিষ্যতে প্রয়োজনীয় টিকা পাওয়ার উৎস নিশ্চিত করা হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় প্রতি মাসে ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে এক কোটি টিকা দেওয়াসহ প্রায় দুই কোটির মতো টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আর এজন্য মাঠ পর্যায়ের টিকাদান কর্মসূচিকে আরও কী করে বাড়ানো যায় বা সম্প্রসারণ করানো যায়, সে বিষয়ে সচেষ্ট রয়েছি।’