৪-৫ দিনের মধ্যে সব জেলায় পৌঁছে যাবে ভ্যাকসিন: পাপন

ভারতের সেরাম ইনস্টিটিটিউট থেকে আমদানি করা করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন আগামী চার থেকে পাঁচ দিনের মধ্যে দেশের সব জেলায় পৌঁছে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন এর আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) নাজমুল হাসান পাপন।

সোমবার বিমানবন্দরের ৮ নম্বর গেটে ভ্যাকসিন গ্রহণ শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘প্রতিটি ভ্যাকসিনের স্যাম্পল আমরা ঔষধ প্রশাসনের ল্যাবরেটরিতে পাঠাবো টেস্ট করতে। তারা ছাড়পত্র দিলে প্রতিটি জেলায় আমরা পৌঁছে দেব। ধারণা করছি, ৪৮ ঘণ্টা পর থেকে অথবা ৪-৫ দিনের মধ্যে আমরা এই ভ্যাকসিনগুলো দেশের সব জেলায় পৌঁছে দিতে পারবো।’

তিনি বলেন, ‘এখন থেকে প্রতিমাসে ৫০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন বেক্সিমকোর মাধ্যমে বাংলাদেশে আসবে। এই ভ্যাকসিন পরিবহনের জন্য আমরা বিশেষ কাভার্ড ভ্যান কিনেছি, যা আমাদের কাছে আগে ছিল না। আজ ৯টি ভ্যান ভ্যাকসিন বহন করছে। মার্চে আরও ভ্যান আসবে।’

বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের এমডি বলেন, ‘মুম্বাই থেকে এই ভ্যাকসিন ঢাকায় এসেছে। বিমানবন্দর থেকে এগুলো বেক্সিমকোর ওয়্যারহাউজে (গুদামে) যাবে। সরকারকে দেওয়ার আগ পর্যন্ত প্রতিটি ভ্যাকসিন চেক করে দেখা হবে। কোথাও কোনো ত্রুটি, ড্যামেজ বা শর্টেজসহ কোনো রকমের সমস্যা থাকে তবে সেগুলো বেক্সিমকো ফার্মা নিয়ে যাবে। সেগুলোর দায় বেক্সিমকোর। সরকারকে আমরা নিখুঁত ভ্যাকসিন দেবো।’

সোমবার আগে সকাল ১০টার একটু পর ৫০ হাজার ভ্যাকসিন নিয়ে এয়ার ইন্ডিয়ার একটি বিমান হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। সরকারের কাছে বিক্রি করতে ভারত থেকে এ ভ্যাকসিন আমদানি করেছে বেক্সিমকো।

Views: 0