আগৈলঝাড়ার শুঁটকি রপ্তানি হচ্ছে দেশের বাইরেও

স্বাদু পানির দেশি প্রজাতির মত্স্য অঞ্চল হিসেবে পরিচিত আগৈলঝাড়ার রাজাপুর-রামশীল শুঁটকি পল্লিতে চলছে ভরা মৌসুম। প্রাকৃতিক পরিবেশে ও স্বাস্থ্যসম্মত এই শুঁটকি পল্লির মাছের চাহিদা রয়েছে বিদেশেও। তবে দেশি প্রজাতির মাছের স্বল্পতার কারণে হতাশায় ভুগছেন শুঁটকি পল্লি­র সঙ্গে জীবিকা নির্বাহ করা মত্স্যজীবী পরিবারগুলো। উপজেলার পশ্চিম সীমান্তবর্তী বাকাল ইউনিয়নের রাজাপুর গ্রামের শুঁটকি ব্যবসায়ী অবনী রায় জানান, এ অঞ্চলের পাঁচ শতাধিক পরিবার শুঁটকি মাছের ব্যবসার সঙ্গে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িত। বিশেষ করে একপাশে নদী অববাহিকা এলাকা অন্য পাশে কোটালীপাড়ার বিল এলাকার মধ্যবর্তী উপজেলার পয়সারহাট-ত্রিমুখী-রাজাপুর গ্রামের বিভিন্ন এলাকায় গড়ে উঠেছে শুঁটকি পল্লি।

 

বিলাঞ্চলের স্বাদু ও মিঠা পানির নানা প্রজাতির শুঁটকি মাছ দেশের অভ্যন্তরীণ চাহিদা মিটিয়ে বিদেশেও রপ্তানি করা হচ্ছে।

 

বিশেষ করে ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট অঞ্চল ও ভারতের আগরতলা পর্যন্ত এখানকার শুঁটকি মাছের চাহিদা রয়েছে ব্যাপক। তবে আগের তুলনায় পুঁটি, দেশি সরপুঁটি, পাবদা, কৈ, শোল, রয়না, খলশা, মাছসহ দেশি প্রজাতির অনেক মাছের সংখ্যা এখন অনেক কমে গেছে। দুষ্প্রাপ্য হয়ে উঠেছে অনেক প্রজাতির দেশি মাছ। শুঁটাক পল্লি­র সঙ্গে জড়িত পরিবারগুলো মৌসুমী ব্যবসায় লাভের আশায় বছরের আশ্বিন মাসের প্রথম থেকে ফাল্গুন মাস পর্যন্ত ছয় মাস নিয়োজিত থাকেন। সবচেয়ে আকর্ষণীয় চাহিদা রয়েছে সিঁধল শুঁটকির। যার প্রধান চাহিদা রয়েছে ঢাকা ও চট্টগামের বাজারে।  সৌখিন ক্রেতারাও এই শুঁটকি পল্লি থেকে তাদের চাহিদানুযায়ী শুঁটকি কেনেন।

 

স্থানীয়রা জানান, একযুগ আগে ভৌগোলিক পরিবেশের কারণে বাণিজ্যিকভাবে গড়ে ওঠা পয়সারহাট-রাজাপুর-ত্রিমুখী শুঁটকি পল্লিতে দেশি প্রজাতির বিভিন্ন প্রকার মাছের মধ্যে পুঁটি, শৌল, টেংরা, খলশা, পাবদা, কৈ, শিং, মাগুর, মেনি, ফলি, বজুরি, বাইন মাছ অন্যতম। এ শুঁটকি পল্লিতে দেশি প্রজাতির মাছগুলো কেটে পানিতে পরিষ্কার করে প্রাকৃতিক নিয়মে রোদে শুকিয়ে বিক্রির জন্য মজুদ করা হয়।

 

এখানে ফরমালিনের মতো বিষাক্ত কোনো রাসায়নিক মাছে মেশানো হয় না। ব্যবসায়ী মনমথ রায়, অশোক রায়, জয়নাল চৌকিদার, মঙ্গল অধিকারী ও নরেশ তালুকদার বলেন, বাজার থেকে একমণ কাঁচা মাছ কিনে শুকালে ১৫-২০ কেজি শুঁটকি মাছ পাওয়া যায়। গড়ে প্রায় তিন মণ কাঁচা মাছ শুকালে একমণ শুঁটকি মাছ পাওয়া যায়। একমণ শুঁটকি পুঁটি মাছ সাত থেকে আট হাজার টাকা বিক্রি হচ্ছে।