ঢাকা-উত্তরাঞ্চল সড়ক যোগাযোগ সাড়ে ৯ হাজার কোটি টাকা দেবে এডিবি

ঢাকার সঙ্গে দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের যোগাযোগে ১৯০ কিলোমিটার সড়ক নির্মাণে সরকারকে ১২০ কোটি ডলার (প্রায় ৯ হাজার ৫০০ কোটি টাকা) ঋণ দিচ্ছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক। সংস্থাটির পরিচালনা পর্ষদ গতকাল মঙ্গলবার এ ঋণ অনুমোদন করেছে। এডিবির দক্ষিণ এশিয়ার প্রকল্প প্রশাসন বিভাগের প্রধান ডং কু লি বলেছেন, আঞ্চলিক বাণিজ্যিক কেন্দ্র হিসেবে বাংলাদেশের বেশ সম্ভাবনা রয়েছে। দেশটির যোগাযোগ অবকাঠামো উন্নয়ন করা গেলে পরিবহন খরচ কমে আসবে, যা প্রতিযোগিতা সক্ষমতা বাড়াবে। এ সড়ক নির্মাণ হলে সংশ্নিষ্ট এলাকার বাণিজ্য ও উন্নয়ন ব্যাপকভাবে ত্বরান্বিত হবে।

এডিবির সহযোগিতায় দক্ষিণ এশিয়া উপ-আঞ্চলিক অর্থনৈতিক সহযোগিতা (সাসেক) কর্মসূচি বাস্তবায়ন হচ্ছে। এর কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে যোগাযোগ অবকাঠামোর উন্নয়ন। সাসেক আঞ্চলিক উন্নয়নকে গতিশীল করতে কাজ করছে। ২০০১ সাল থেকে সাসেক সদস্যরা বিভিন্ন প্রকল্পে ৯ দশমিক ১৭ বিলিয়ন ডলারের বেশি বিনিয়োগ করেছে। এর মধ্যে ৩১টি যোগাযোগ প্রকল্প রয়েছে, যেখানে ৭ দশমিক ৩ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ হয়েছে।

এডিবি জানায়, ঢাকা-উত্তরাঞ্চল যোগাযোগ উন্নয়নে এডিবি ১৯৯৪ সাল থেকেই সরকারের সহযোগী। যমুনা ব্রিজ তৈরির সময় ১৯ কোটি ৮০ লাখ ডলার ঋণ দেয় ম্যানিলাভিত্তিক সংস্থাটি। যাকে আন্তর্জাতিক করিডর উন্নয়নের প্রথম পর্যায় বলছে এডিবি। ওই ঋণে জয়দেবপুর থেকে টাঙ্গাইলের এলেঙ্গা পর্যন্ত ৭০ কি.মি. সড়ক তৈরি করা হয়। এ সড়ক বাংলাদেশ থেকে ভুটান ও ভারতে যাওয়ার প্রবেশদ্বার হিসেবে কাজ করছে। এবার আন্তর্জাতিক করিডর উন্নয়নের দ্বিতীয় পর্যায়ের জন্য ঋণ দিচ্ছে এডিবি। এ ঋণে টাঙ্গাইলের এলেঙ্গা থেকে হাটিকুমরুল হয়ে রংপুর পর্যন্ত ১৯০ কিলোমিটার সড়ক উন্নয়ন করা হবে।