উদ্ভাবনী উদ্যোগে ব্যতিক্রম নওয়াপাড়ার ভূমি দফতর

মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিকাশে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

যশোরের অভয়নগরের নওয়পাড়ায় অবস্থিত ভূমি অফিস গত কয়েক মাসে নতুন করে নিজেকে পরিচয় করিয়েছে দুর্নীতি ও দালাল মুক্তকরণ এবং নানান উদ্ভাবনী উদ্যোগের মাধ্যমে। সেই সঙ্গে সৃজনশীল কিছু উদ্যোগ এই অফিসকে করেছে সবার থেকে আলাদা। এ বছর মার্চ মাসে সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসেবে মনদীপ ঘরাই যোগদানের পর থেকেই বদলে যায় অফিসের চালচিত্র। তরুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস জানাতে ও অফিসকে জনবান্ধব করতে তৈরি করা হয় থিম পার্ক ‘স্বাধীনতা অঙ্গন’। এ স্বাধীনতা অঙ্গনেই মনদীপ ঘরাই গড়ে তুলেছেন দেশের প্রথম মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক মুক্ত আকাশ পাঠাগার। নাম তার ‘মুক্তপাতা’ আর পাঁচটা পাঠাগার বা লাইব্রেরি থেকে সম্পূর্ণ আলাদা মুক্তপাতা। এখানে বইয়ের কোনো তাক নেই, নেই কোনো বদ্ধ ঘরে বসে পড়ার ব্যবস্থা। মুক্ত বা খোলা আকাশের নিচে বসেই পাঠক সাহিত্যের রস আস্বাদন করবেন। নেই কোনো রেজিস্টার বা লাইব্রেরিয়ান। সাত বীরশ্রেষ্ঠের স্মরণে গড়ে তোলা বৃক্ষ আকৃতির ৭টি বসার স্থান। সেখানেই মুক্তভাবে রাখা আছে ৭টি বই। প্রত্যেকটিই আমাদের গৌরবোজ্জ্বল মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে। স্বভাবতই প্রশ্ন আসতে পারে, রোদ-বৃষ্টি-ঝড়ে কি হয় বইগুলোর ভাগ্যে? এ নিয়েও উদ্ভাবনী চিন্তা কাজে লাগিয়েছে মনদীপ।

তিনি জানান, মুক্ত আকাশ পাঠাগার করেছি দুটি কারণে। প্রথমত, জ্ঞানকে চার দেয়ালের বাইরে নিয়ে আসা, সেই সঙ্গে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসভিত্তিক বইগুলো তরুণ প্রজন্মের চোখের সামনে নিয়ে আসা। পাঠাগারের ধরণ ঠিক রাখতে বইগুলো সম্পূর্ণ লেমিনেটিং করা হয়েছে। প্রতিনিয়ত বইগুলো খোলা আকাশের নিচেই থাকে, এতে পাঠকদের মধ্যে সততার একটা অভ্যাসও গড়ে তোলা হচ্ছে। মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক বা ভূমি অফিসে তো বটেই, মুক্ত আকাশ পাঠাগার হিসেবে মুক্তপাতাই দেশে প্রথম। এ পাঠাগারে শিক্ষার্থীরা তো আসেনই, সেই সঙ্গে প্রায়শই দেখা মেলে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের। প্রতি তিন মাস পর পর বই পরিবর্তনের বিধান রাখা হয়েছে। সে মতে এখন দ্বিতীয় সংস্করণের বই রাখা আছে এ পাঠাগারে।

পাঠাগারে বই পড়তে আসা নওয়াপাড়া ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থী তারেক বলেন, আমাদের জন্য এ এক নতুন অভিজ্ঞতা। বই পড়ছি, ছবি তুলছি, সবমিলিয়ে আধুনিক জীবনের সঙ্গে পুরোপুরি মিলে যাওয়া এক লাইব্রেরি এটা। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’, একাত্তরের দিনগুলি, একাত্তরের চিঠি ও মা নিয়ে লেখা বই স্থান পেয়েছে এ মুক্ত আকাশ পাঠাগারের বইয়ের তালিকায়। মুক্তপাতা বাংলাদেশে প্রথম, তাও আবার মফঃস্বলে। তবে বহির বিশ্বে একটু ভিন্ন আঙ্গিকে হলেও open sï library আছে জার্মানীর ম্যাকডেবার্গে। এ বছরের জুন মাস থেকে শুরু হয় মুক্ত আকাশের নিচে অবস্থিত মুক্ত পাতার পথচলা। এ পর্যন্ত সহস্রাধিক পাঠক- দর্শনার্থী এসেছেন মুক্তপাতায়। এ পাঠাগারের উদ্ভাবক মনদীপ ঘরাই স্বপ্ন দেখেন দেশের প্রত্যেকটি প্রতিষ্ঠানেই গড়ে উঠুক সাহিত্যের চর্চা, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার চর্চা জাগ্রত হোক সকলের মাঝে।