রান্না ঘরে গ্যাস লিকেজ হলে সংকেত দেবে যন্ত্র

এবার নিরাপদ এলপি গ্যাস ব্যবহারে খুলনার খুদে শিক্ষার্থীরা তৈরি করেছে ‘গ্যাস লিকেজ অর স্মোক ডিটেক্টর’ প্রযুক্তি। রান্না ঘরের যে কোনো জায়গায় সংবেদনশীল যন্ত্রটি (সেন্সর) বসানো যাবে।

কোনো কারণে গ্যাস লিকেজ হলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে তা শব্দ করে সতর্কবার্তা জানাবে। রবিবার খুলনার নেভি অ্যাংকরেজ স্কুল অ্যান্ড কলেজের আয়োজনে বার্ষিক বিজ্ঞান মেলায় নতুন এই প্রযুক্তি প্রদর্শন করে শিক্ষার্থীরা। পাশাপাশি তাদের তৈরি করা সেন্সর ডোর, বন্যা শনাক্তকরণ যন্ত্র, রিউব গোল্ডবার্গ মেশিন ও বিদ্যুৎ তৈরির ঘূর্ণায়মান যন্ত্র বিজ্ঞান মেলায় স্থান পায়। আয়োজকরা জানান, সারা দেশেই রান্নার কাজে বাড়ছে এলপি গ্যাসের ব্যবহার। আর সেই সঙ্গে ত্রুটিপূর্ণ গ্যাস সিলিন্ডার বা চুলার মাধ্যমে মাঝে মধ্যেই ঘটছে দুর্ঘটনা। তবে শিক্ষার্থীদের আবিষ্কৃত এই প্রযুক্তিতে দুর্ঘটনা এড়ানো সক্ষম হবে। জানা যায়, বিজ্ঞান মেলায় ৩১২ জন শিক্ষার্থীর ৮৮টি প্রকল্প প্রদর্শন করা হয়। এ মেলার উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ নৌবাহিনী পরিবার কল্যাণ সংঘ, খুলনার চেয়ারম্যান বেগম আফসানা আলম। এ সময় স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি কমোডর সামসুল আলম (জি) এনইউপি, এনডিইউ, পিএসসি, বিএন উপস্থিত ছিলেন। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ কমান্ডার এম আশরাফুল আলম, বিএন জানান, শিক্ষার্থীদের সুপ্ত উদ্ভাবনী ক্ষমতাকে বাস্তবে রূপ দিতে এ বিজ্ঞান মেলার আয়োজন। কমোডর কমান্ডিং খুলনা কমোডর সামসুল আলম বলেন, বিজ্ঞান মেলা আয়োজনে খুদে শিক্ষার্থীদের মধ্যে গবেষণার বীজ বপন করা হয়েছে। সারা দেশে এই ধরনের বিজ্ঞান মেলা আয়োজন করা হলে খুদে শিক্ষার্থীরা গবেষণা ও উদ্ভাবনী কর্মকাণ্ডে উত্সাহিত হবে।