পাটের নতুন জাতের যাত্রা শুরু

পাটের জীবন রহস্য উন্মোচন করে উদ্ভাবিত নতুন জাত রবি-১ পরীক্ষামূলকভাবে প্রথম আবাদ হয়েছে ফরিদপুর জেলায়। এর মধ্যদিয়ে পাটের নতুন যাত্রা শুরু হয়েছে বলে মনে করছেন পাট বিশেষজ্ঞরা।

পাট গবেষণা ইনস্টিটিউটের একদল বিজ্ঞানীর নেতৃত্বে রবি-১ জাতের নতুন উদ্ভাবিত পাট চাষ হয়েছে ফরিদপুর জেলার নগরকান্দা উপজেলার তালমা ইউনিয়নের মানিকনগর গ্রামের বেশকিছু জমিতে। স্থানীয় কৃষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, অন্য জাতের তুলনায় নতুন এ জাতের পাটের ফলন কমপক্ষে ২০ শতাংশ বেশি। তাছাড়া অন্যজাতের পাট কাটতে ১২০ দিন সময় লাগলেও এটি কাটা যাবে ১০০ দিনে। সাধারণ পাটের আগা চিকন ও গোড়া মোটা হলেও নতুন এ জাতের আগা-গোড়া সমান। এর আঁশের উজ্জ্বলতাও বেশি। সময় কম লাগায় জমিতে অন্য ফসল করার সুযোগও থাকছে। নতুন এ জাত আবিষ্কারের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা জানান, প্রচলিত তোষা পাটের জিন কাঠামোয় সামান্য পরিবর্তন করে এই নতুন জাত উদ্ভাবন করা হয়েছে। এটি সারা দেশের কৃষকদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে পারলে আগামীতে পাট আবাদে ব্যাপক সাফল্য পাবেন কৃষক। পরীক্ষামূলকভাবে চাষ করা নতুন জাতের পাট নিয়ে বেশ আশাবাদী ফরিদপুর অঞ্চলের চাষিরা। আগামীতে ব্যাপক হারে রবি-১ জাতের পাট আবাদ করবেন বলে জানিয়েছেন তারা। নতুন জাতের পাট আবাদকারী কৃষক লক্ষণ সেন, নইমুদ্দিন ও সেকেন শেখ জানান, প্রথম দিকে এ জাত নিয়ে শংকিত ছিলাম। কিন্তু পরীক্ষামূলকভাবে অল্প কিছু জমিতে আবাদ করি। এখন দেখছি আগে পাট আবাদ করে যে ফলন পেতাম তার চেয়ে বেশি ফলন হয়েছে। তাছাড়া এ জাতের পাট বেশ লম্বা হয়েছে। আগা ও গোড়া সমান হওয়ায় পাটের আঁশ দেখতেও সুন্দর। এতে করে পাটের দাম ভালো পাব বলে আশা করছি।