মেহেরপুরের হিমসাগর আম ইউরোপে রপ্তানি হচ্ছে

আম উত্পাদনের দিক থেকে রাজশাহী প্রথম হলেও স্বাদের দিক থেকে মেহেরপুরই সেরা। মাটি ও আবহাওয়ার কারণে মেহেরপুরের সুস্বাদু হিমসাগর আম এবারও ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন (ইইউ) ভুক্ত দেশগুলোতে রপ্তানি হতে যাচ্ছে।

গত বছর কীটনাশকমুক্ত আম প্রথম বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করার ফলে এ অঞ্চলের আম চাষিদের মধ্যে উত্সাহ দেখা দেয়। গত বছর ১২ মেট্রিক টন আম ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের বিভিন্ন দেশে রপ্তানি হয়। আম সুস্বাদু হওয়ায় এবার দুইশ মেট্রিক টন আম যাবে ইউরোপিয়ানভুক্ত দেশগুলোতে।

আন্তর্জাতিক বাজারে আমের রাজা হিমসাগর আমকে ছড়িয়ে দিতে মেহেরপুর জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ২০১৫ সালে উদ্যোগ নেয়। ওই উদ্যোগে জেলার ১৫টি বাগান নির্বাচন করা হয়। রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান ওইসব বাগান থেকে প্রথমবারের মতো ৪৫ হাজার আম সংগ্রহ করে। এবার ইইউতে যাবে দুইশ মেট্রিক টন আম। নির্ধারিত বাগানগুলোতে গাছের আমে কার্বোন ব্যাগ পরিয়ে রাখা হয়েছে। আম চাষিদের প্রতিটি কার্বো ব্যাগ কিনতে হয়েছে চার টাকা করে। এসব ব্যাগ দুই বছর ব্যবহার করা যাবে। মেহেরপুর থেকে গত বছর আম রপ্তানি হয়েছিল মাত্র ১২ মেট্রিক টন। এ বছর সেটি বেড়ে ২০০ মেট্রিক টনে উন্নীত হয়েছে।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, গত বছর থেকে চাষি নির্বাচন করা হয়েছে কন্ট্রাক্ট ফার্মিং বা চুক্তিভিত্তিক আম উত্পাদনের জন্য। মেহেরপুর সদর উপজেলার আমদহ ও ঝাউবাড়িয়া গ্রামের নির্বাচিত আম বাগান ঘুরে দেখা গেছে, বাগানগুলোতে কার্বো ব্যাগ পরানো আম।

সদর উপজেলার ঝাউবাড়িয়া গ্রামের বাগান মালিক শাহীনুর রহমান জানান, তার বাগানে তিনশটি হিমসাগর আমের গাছ রয়েছে। এসব গাছে আম বাছাই করে সেগুলো এক ধরনের কার্বোন ব্যাগ পরিয়ে সংরক্ষণ করা হচ্ছে। এ ধরনের নির্বাচিত বাগানগুলোতে আম বাছাই করে ব্যাগে সংরক্ষণ করা হচ্ছে। দুইশ মেট্রিক টন আম রপ্তানি করা হবে। আগামী ৩১ মে থেকে ওই আম সংগ্রহ শুরু হবে।

বাগান মালিক ওবাইদুর রশিদ জানান, তার বাগানের আম ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে যাবে শুনে তিনি আনন্দিত। মিনারুল ইসলাম নামের এক আম চাষি জানান, বিদেশে আম রপ্তানির জন্য যে আম বাছাই করা হয়েছে। সেগুলো যত্ন নেওয়ার কাজ চালিয়ে যাচ্ছে বাগান মালিকেরা।

রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান ইউরোপিয়ান ই্উনিয়ন প্রতিনিধি মফিজুর রহমান বলেন, ব্যাগে সংরক্ষণ করলে আমের বোটা শক্ত হবে এবং আমটি বাইরের যে কোনো ক্ষতিকর অবস্থা থেকে রক্ষা পাবে এবং রঙ নষ্ট হবে না। দামও ভালো পাবে চাষি।

মেহেরপুর জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক এস এম মোস্তাফিজুর রহমান জানান, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উদ্যোগে মেহেরপুরের এই সুস্বাদু হিমসাগর আম ইউরোপিয়ান ইউনিয়নে রপ্তানি করা হচ্ছে। তিনি আরো জানান, চাষিদের মধ্যে উত্সাহ দেখা দিয়েছে ব্যাগ পদ্ধতিতে আম চাষ করে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের।