দক্ষিণাঞ্চলে ৪শ’ কেভি বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন হচ্ছে

দক্ষিণাঞ্চলে বিদ্যুৎ সঞ্চালন সক্ষমতা বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি বাংলাদেশ (পিজিসিবি)। এ জন্য ওই অঞ্চলে প্রথম ৪০০ কিলোভোল্ট (কেভি) বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন নির্মাণের কাজ শুরু হচ্ছে। পটুয়াখালীর পায়রা থেকে গোপালগঞ্জ পর্যন্ত ১৬০ কিলোমিটার দীর্ঘ ডাবল সার্কিট লাইনটি নির্মাণে ব্যয় ধরা হয়েছে এক হাজার ৪১২ কোটি টাকা।

কোরিয়ান প্রতিষ্ঠান জিএস ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড কনস্ট্রাকশন করপোরেশন টার্নকি পদ্ধতিতে এ কাজ করবে। বুধবার ঢাকায় জিএসের সঙ্গে একটি চুক্তি করেছে পিজিসিবি। পিজিসিবির কোম্পানি সচিব মো. আশরাফ হোসেন ও জিএস ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ভাইস প্রেসিডেন্ট হো ইয়ুন জ্যাং চুক্তিপত্রে সই করেন।

প্রকল্প পরিচালক মৃণাল কান্তি পাল জানান, এ লাইনের প্রতি ফেজে চারটি করে অত্যাধুনিক ‘এসিসিসি কন্ডাক্টর’ (তার) ব্যবহার করা হচ্ছে। ফলে অন্যান্য ৪০০ কেভি লাইনের তুলনায় এ লাইনের সঞ্চালন ক্ষমতা কয়েকগুণ বেশি হবে; আট হাজার মেগাওয়াট। এ লাইনের মাধ্যমে পায়রায় নির্মিতব্য এক হাজার ৩২০ মেগাওয়াটের বিদ্যুৎ সঞ্চালন করা হবে। ভবিষ্যতে ওই এলাকায় বিদ্যুৎ উৎপাদন বাড়লে তা এই সঞ্চালন লাইনের মাধ্যমে জাতীয় গ্রিডে যোগ হবে।

তিনি বলেন, ‘পায়রা থেকে গোপালগঞ্জ পর্যন্ত লাইন নির্মাণ করতে পায়রা, সন্ধ্যা ও সুগন্ধা নদী পার হতে হবে। এ জন্য নদীগুলোর উভয় প্রান্তে সুউচ্চ সঞ্চালন টাওয়ার নির্মাণ করতে হবে।’

চুক্তি অনুযায়ী, বাংলাদেশ সরকারের অর্থায়নে প্রকল্পের নির্মাণকাজ শেষ হবে।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে পিজিসিবির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাসুম-আলবেরুনী, নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ শফিকউল্লাহ, চৌধুরী আলমগীর হোসেন, মো. এমদাদুল ইসলাম, পরেশ চন্দ্র রায়সহ উভয়পক্ষের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।