সেতু বিভাগের মেগা আট প্রকল্প বাস্তবায়নের পথে

এপ্রিল পর্যন্ত পদ্মা সেতুর সার্বিক অগ্রগতি হয়েছে ৪১ দশমিক ৫ শতাংশ। সাপোর্ট টু ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের কাজও এগিয়ে চলেছে। সেতু বিভাগের এ ধরনের মেগা ৮ প্রকল্প দ্রুত বাস্তবায়নে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। অন্য ৬ প্রকল্প হচ্ছে ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে, গ্রেটার ঢাকা সাসটেইনেবল আরবার ট্রান্সপোর্ট করিডোর (বিআরটি গাজিপুর-এয়ারপোর্ট-এয়ারপোর্ট, সেতু কর্তৃপক্ষ অংশ), কর্ণফুলী নদীর তলদেশে বহুলেন বিশিষ্ট টানেল নির্মাণ, বঙ্গবন্ধু সেতুর উভয় প্রান্তে সংযোগ সড়ক চার লেনে উন্নীতকরণ, ঢাকা শহরের সাবওয়ে (আন্ডারগ্রাউন্ড মেট্রো) নির্মাণে সম্ভাব্যতা সমীক্ষা পরিচালনা এবং যমুনা নদীর তলদেশে টানেল নির্মাণে সম্ভাব্যতা সমীক্ষা প্রকল্প।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, চলতি মাসে প্রকল্প বাস্তবায়ন অগ্রগতি পর্যালোচনা সভার কার্যবিবরণী সূত্রে গত এপ্রিল মাস পর্যন্ত প্রকল্পগুলোর অগ্রগতি জানা গেছে। সভায় সেতু বিভাগের সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম পদ্মা সেতু প্রকল্পের বিভিন্ন প্যাকেজের ভৌত ও আর্থিক অগ্রগতি লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী বাস্তবায়ন নিশ্চিত করাসহ অন্য প্রকল্পগুলোর বাস্তবায়ন বাড়ানোর তাগিদ দিয়েছেন। পদ্মা সেতুর প্রকল্প পরিচালক সভায় জানান, গত এপ্রিল মাস পর্যন্ত পদ্মা সেতুর সার্বিক অগ্রগতি হয়েছে ৪১ দশমিক ৫ শতাংশ। প্রকল্পের মূল সেতু ও নদী শাসন কাজের বাস্তবায়ন অগ্রগতি লক্ষ্যমাত্রা থেকে কিছুটা পিছিয়ে রয়েছে। মূল সেতুর ৪০টি পিয়ারের মধ্যে ২৬টি পিয়ারের ১৫৬টি পাইলের দৈর্ঘ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। পাইল ড্রাইভিংয়ের কাজ আগামী ৫-৬ মাসের মধ্যে সম্পন্ন হবে। অবশিষ্ট ১৪টি পিয়ারের ৮৪টি পাইলের বিষয়ে মাটির অবস্থা বিবেচনায় ডিজাইন পরামর্শকের মতামত চাওয়া হয়েছে। তাছাড়া বর্ষাকালে নদী শাসন কাজের অগ্রগতি কিছুটা ধীর হবে। তিনি জানান, মাওয়া সংযোগ সড়ক ও সার্ভিস এরিয়া-২ এর নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। জাজিরা সংযোগ সড়কের কাজ আগামী জুনের মধ্যে শেষ হবে।

সাপোর্ট টু ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে পিপিপি প্রকল্পের অগ্রগতি বিষয়ে বলা হয়েছে, ভূমি অধিগ্রহণ কাজের প্রথম পর্যায়ে ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ দেয়া হয়েছে। শুধু দশমিক ৭৭ একর জমি হস্তান্তর এখনও জেলা প্রশাসকের দফতরে প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। প্রকল্পের দ্বিতীয় ও তৃতীয় পর্যায়ে ভূমি অধিগ্রহণ বাবদ ১ হাজার ২১২ কোটি ৯৫ লাখ টাকা ঢাকার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে। জমি হস্তান্তরও সম্পন্ন হয়েছে। দ্বিতীয় ও তৃতীয় পর্যায়ে ইউটিলিটি অপসারণের কাজ শুরু হয়েছে। ভূমি অধিগ্রহণে ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনে ৪০ একর জমির উন্নয়ন কাজ চলছে। পুনর্বাসন ভিলেজ নির্মাণের নকশা প্রাথমিকভাবে অনুমোদিত হয়েছে। এছাড়া দরপত্র আহ্বানও করা হয়েছে।

ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণ প্রকল্পের অগ্রগতি বিষয়ে বলা হয়েছে, গত এপ্রিল মাস পর্যন্ত ৬৪৭টি ওয়ার্কিং পাইল ড্রাইভিং এবং ৪৩টি পাইল কাপ ও দুটি পিয়ার নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে। বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান গত বছরের ২৯ ডিসেম্বর সিআইজিএফ নামক চীনা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে অর্থনেতিক চুক্তি করেছে। এ প্রকল্পের কাজের গতি বাড়ানোর তাগিদ দেয়া হয় সভায়।

বিআরটি গাজীপুর-এয়ারপোর্ট (সেতু কর্তৃপক্ষের অংশ) শীর্ষক প্রকল্পের বিষয়ে প্রকল্প পরিচালক সভায় জানান, নির্মাণ কাজের ঠিকাদার নিয়োগে দরপত্র আহ্বান করা হলে গত বছরের ৪ আগস্ট ১৬টি দরপত্র জমা পড়ে। তার মধ্যে ৭টি কারিগরিভাবে রেসপনসিভ হয়। ফলে এগুলোর আর্থিক দর প্রস্তাব খোলা হয়। এখন মূল্যায়ন চলছে। এ প্রকল্পেও গতি বাড়ানোর তাগিদ দেয়া হয়েছে।

কর্ণফুলী নদীর তলদেশে টানেল নির্মাণ প্রকল্পের অগ্রগতি বিষয়ে বলা হয়েছে, এ প্রকল্পের পশ্চিম প্রান্তে বন্দর থানার দক্ষিণ পতেঙ্গা মৌজার ব্যক্তিমালিকানাধীন জমি অধিগ্রহণের প্রস্তাব অনুমোদিত হয়েছে। এছাড়া সরকারি বিভিন্ন সংস্থার জমি ইতিমধ্যেই হস্তান্তর করা হয়েছে। সার্ভিস এরিয়ার জন্য আনোয়ারা থানায় ৮৫ দশমিক ৮৯ একর জমি সেতু কর্তৃপক্ষের কাছে স্থায়ী বন্দোবস্ত দেয়া হয়েছে। ট্যানেল নির্মাণ, পুনর্বাসন কাজের জন্য ভূমি অধিগ্রহণের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড ও ইকুইপমেন্ট স্থাপনে জমি হস্তান্তর করা হয়েছে। বিভিন্ন পর্যায়ে জনবল নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এছাড়া সাইট নির্মাণে জমি হস্তান্তর, নির্মাণ যন্ত্রপাতি আমদানি শুরু হয়েছে, ঋণ চুক্তি ইফেকটিভনেসের সব শর্ত পূরণ করা হয়েছে।

বঙ্গবন্ধু সেতুর উভয় পাড়ের সংযোগ সড়ক চার লেনে উন্নীতকরণ প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য উভয় পাশের বন বিভাগের গাছ কাটতে অ্যালাইনমেন্ট বরাবর গাছ গণনা ও মার্কিংয়ের কাজ শেষ হয়েছে। ঢাকা শহরের সাবওয়ে (আন্ডারগ্রাউন্ড মেট্রো) নির্মাণে সম্ভাব্যতা সমীক্ষা পরিচালনায় প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির (পিইসি) সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এছাড়া যমুনা নদীর তলদেশে টানেল নির্মাণে সম্ভাব্যতা সমীক্ষা প্রকল্পের ওপর পরিকল্পনা কমিশনে প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির (পিইসি) সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ওই সভার সুপারিশ অনুযায়ী প্রাথমিক সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে।