মাস্টার শেফ অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশি রাশেদুল

অস্ট্রেলিয়ার জনপ্রিয় রান্না বিষয়ক অনুষ্ঠান ‘মাস্টার শেফ অস্ট্রেলিয়া’ প্রতিযোগিতায় সেরা ২০ জনের মধ্যে সুযোগ পেয়েছেন বাংলাদেশি রাশেদুল হাসান। অস্ট্রেলিয়াজুড়ে ১৮ বছর অনূর্ধ্ব বয়সী এমন বিপুল সংখ্যক প্রতিযোগীর অংশগ্রহণে শুরু হয়েছিল এই প্রতিযোগিতা। সম্প্রতি এদের মধ্যে থেকে বেছে নেওয়া হয় সেরা ২০ জনকে। রাশেদুল হাসান প্রথম বাংলাদেশি অভিবাসী যিনি মাস্টার শেফ অস্ট্রেলিয়া প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে সেরা ২০-এ স্থান করে নিয়েছেন। এর আগে চলতি বছর মার্চে যুক্তরাষ্ট্রে ‘মাস্টার শেফ জুনিয়র’ প্রতিযোগিতায় পঞ্চম আসরে সেরা ২০ জনের মধ্যে অষ্টম হয়েছে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ১৩ বছর বয়সী আফনান আহমেদ। যুক্তরাষ্ট্রের ৫ হাজার শিশু-কিশোর অংশ নেওয়া এই প্রতিযোগিতায় অষ্টম সেরা প্রতিযোগীর খেতাব মেলে আফনানের।

প্রতিবারের নেয় এবারও মাস্টার শেফ অস্ট্রেলিয়া প্রতিযোগিতায় প্রথম রাউন্ডে তিন বিচারকের সামনে একটি তৈরিকৃত খাবার উপস্থাপনের মাধ্যমে অডিশনে অংশ নেয় প্রতিযোগীরা। খাদ্য জ্ঞান ও প্রস্তুতির উপর ভিত্তি করেই বাছাই করা হয় প্রতিযোগীদের। প্রথম রাউন্ড থেকেই রাশেদুল বেশ সাফল্য অর্জন করেন। গত ১ মে নেটওয়ার্ক টেনে সম্প্রচারিত নবম আসরের প্রথম পর্বে রান্না করেন সেফ্রন পোচড পিয়ার ও স্মোকড ভ্যানিলা আইসক্রিম নামের দুইটি ডিশ। পরে তা বিচারকদের সামনে উপস্থাপন করা হয়। এই সময় উপস্থিত ছিলেন তার পরিবারের সদস্যরাও। যুক্তরাজ্যে জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘মাস্টার শেফ’ অনুকরণে ২০০৯ সাল থেকে শুরু হয় এই প্রতিযোগিতা। এবারের আসরের বিচারক হিসেবে আছেন গ্যারি মেহেগান, জর্জ ক্যালম্বারিস ও ম্যাট প্রিস্টন। অনুষ্ঠানটি সম্প্রচারিত হয় প্রতি রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার সপ্তাহে ৫ দিন।