গতি পেয়েছে কর্ণফুলী টানেল প্রকল্প

কর্ণফুলী টানেল প্রকল্পের ভূমি অধিগ্রহণ, বিদ্যুত্ সংযোগ প্রদানসহ বিভিন্ন কাজে দ্রুত অগ্রগতি হয়েছে। কর্ণফুলী নদীর তলদেশে বহু-লেইন সড়ক টানেল নির্মাণ প্রকল্পের উপ-প্রকল্প পরিচালক (ডিপিডি) ড. অনুপম সাহা ইত্তেফাককে বলেন, কর্ণফুলী টানেলের জন্য বিভিন্ন সংস্থার ভূমি দ্রুত অধিগ্রহণ করা হয়েছে। এ রকম অগ্রগতি আগে দেশের আর কোনো প্রকল্পে দেখা যায়নি। তিনি বলেন, টানেলের জন্য বিদ্যুত্ সরবরাহ ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে পিডিবি ইতোমধ্যে দরপত্র আহ্বান করেছে। অন্যান্য বিষয়গুলোকে দ্রুত সমন্বিত করারও কাজ চলছে।

কর্ণফুলী টানেল বাস্তবায়নের প্রক্রিয়াসমূহে দ্রুত অগ্রগতি হওয়ায় দক্ষিণ চট্টগ্রামে অর্থনৈতিক কর্মযজ্ঞ গড়ে তোলার ব্যাপারে ব্যবসায়ী মহলেও সৃষ্টি হয়েছে ব্যাপক উদ্দীপনা। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ইতোমধ্যে প্রকল্প বাস্তবায়নকারী ঠিকাদারী সংস্থা চায়না কমিউনিকেশন কনস্ট্রাকশন লিমিটেড-এর (সিসিসিসি) কাছে ইতোমধ্যে অধিগৃহীত উল্লেখযোগ্য পরিমাণ ভূমি হস্তান্তরও করা হয়েছে। গত বছর আগস্টে প্রকল্পের পশ্চিম পতেঙ্গা প্রান্তে ৬৯ দশমিক ৯০৫ একর ভূমি অধিগ্রহণের জন্য চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক বরাবরে চাহিদাপত্র জমা দেয়া হয়। এসব ভূমির মধ্যে ছিলো চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের ১ দশমিক ১৩ একর, বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের ৯ দশমিক ৫৪৫ একর, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের ১৭ দশমিক ৪১৮৩ একর, বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর ৭ দশমিক ৫১৭৫ একর এবং ব্যক্তি মালিকানাধীন ৩৪ দশমিক ৭৮৪০ একর ভূমি। ভূমি মন্ত্রণালয়ের কেন্দ্রীয় ভূমি বরাদ্দ কমিটি চলতি বছরের ২ ফেব্রুয়ারি এসব ভূমি অধিগ্রহণের সুপারিশ অনুমোদন করে। এরই মধ্যে বিভিন্ন সংস্থার ভূমির ছাড়পত্র পাওয়া যাওয়ায় সেসব ভূমি ঠিকাদারি সংস্থাকে হস্তান্তরও করা হয়েছে।

প্রকল্প সূত্র আরো জানায়, টানেলের উভয় পাশে পতেঙ্গা ও আনোয়ারা এলাকার ১৫ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন ২টি বিদ্যুত্ সাব-স্টেশন নির্মাণের জন্য পিডিবি কর্তৃপক্ষের কাজ অনেকটা অগ্রসর হয়েছে। সেই সঙ্গে পশ্চিম পতেঙ্গা প্রান্তে ২ মেগাওয়াট সাময়িক বিদ্যুত্ সংযোগ গ্রহণের জন্য ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সিসিসিসি নিজস্ব অর্থায়নে সাব-স্টেশনের জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি চীন থেকে আনার প্রক্রিয়া চালাচ্ছে। পিডিবির স্পেসিফিশেন অনুসারে ঠিকাদারি সংস্থা এই সাব-স্টেশনটি তৈরি করবে। সূত্রটি আরো জানায়, পূর্ব আনোয়ারা প্রান্তে ১৫ মেগাওয়াট বিদ্যুত্ সাব-স্টেশন এবং ২ মেগাওয়াট সাময়িক বিদ্যুত্ সংযোগ প্রদানের জন্য পিডিবি ও অপর একটি সংস্থা আগ্রহ প্রকাশ করেছে। পূর্ব পতেঙ্গা ২ মেগাওয়াট সাময়িক বিদ্যুত্ সংযোগ গ্রহণের জন্য ঠিকাদারি সংস্থা সিসিসিসি নিজস্ব অর্থায়নে কার্যক্রম গ্রহণ করেছে। এ ব্যাপারে পিডিবি, ঠিকাদারি সংস্থাসহ চারটি প্রতিষ্ঠান সমন্বিতভাবে কার্যক্রম গ্রহণ করেছে।

প্রকল্প সূত্র জানায়, টানেল নির্মাণ এলাকায় পতেঙ্গা ও আনোয়ারা প্রান্তে ডিপ টিউবওয়েল স্থাপনে ‘বগুড়া আরডিএ’ নামের একটি সংস্থার সঙ্গে চুক্তিও হয়েছে। সংস্থাটি ইতোমধ্যে কাজ শুরু করে দিয়েছে।

অন্যদিকে সিইউএফএলের সঙ্গে জেটি নির্মাণের জন্য আলোচনাও হয়ে গেছে। ঠিকাদারি সংস্থা জেটির একটি নকশা তৈরি করছে। নকশা অনুমোদিত হলে জেটি নির্মাণের কাজ পুরোদমে শুরু হয়ে যাবে বলে সূত্রটি জানায়।