সাততলা স্বয়ংক্রিয় টার্মিনাল

যানজট নিরসনে এবার অভিনব উদ্যোগ নিয়েছে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (সিডিএ)। ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে নিউমার্কেট এলাকায় গড়ে তোলা হচ্ছে স্বয়ংক্রিয় সাততলা টার্মিনাল। এখানে রাখা যাবে ২৮টি গাড়ি। এখানে গাড়ি রাখতে ঘণ্টা হিসেবে ফি পরিশোধ করতে হবে।
২০১৬ সালের শেষ দিকে এ টার্মিনাল নির্মাণের জন্য দরপত্রের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়। আজিজ অ্যান্ড কোম্পানি নামে একটি প্রতিষ্ঠান কাজ পেয়েছে।
সিডিএ’র নির্বাহী প্রকৌশলী আহমেদ মহিউদ্দিন জানান, নিউমার্কেটের গাড়ি পার্কিংয়ের স্থানে প্রতি তলায় পাঁচটি গাড়ি রাখার ব্যবস্থা করে সাততলা এ মাল্টিলেভেল কার পার্কিং স্পেস নির্মাণ করা হচ্ছে। সাততলার স্টিলের এ কাঠামোয় পাঁচটি করে ৩৫টি গাড়ি পার্ক করার জায়গা রয়েছে। তবে গাড়ি চলাচলের জন্য ফাঁকা স্থান রাখতে হবে। এ কারণে প্রতি তলায় চারটি করে গাড়ি রাখা হবে। সাত স্তরে মোট ২৮টি গাড়ি পার্ক করা যাবে। স্থান খালি থাকা সাপেক্ষে নির্দিষ্ট কার্ড পাঞ্চ করেই এখানে গাড়ি রাখার সুযোগ পাবেন যে কেউ। এজন্য পরিশোধ করতে হবে নির্দিষ্ট ফি। কার্ড পাঞ্চ করার পরই স্বয়ংক্রিয়ভাবে গাড়ি প্রবেশ করানো এবং বের করা যাবে।
এ প্রসঙ্গে সিডিএ চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম আলোকিত বাংলাদেশকে বলেন, যানজট চট্টগ্রামের প্রধান কয়েকটি সমস্যার মধ্যে অন্যতম। এ যানজটের কবলে পড়ে প্রতিদিন মানুষের কর্মঘণ্টা নষ্ট হচ্ছে। অপচয় হচ্ছে জ্বালানি। যত্রতত্র গাড়ি পার্কিংয়ের কারণে যানজট হয়ে ওঠে দুর্বিষহ। পার্কিংয়ের জন্য পরিকল্পিতভাবে ভবন মালিকরা রাখেননি জায়গাও। তাই স্বল্প জায়গায় বেশি গাড়ি রাখা জন্য মাল্টিলেভেল কার পার্কিং সিস্টেম একটি কার্যকর পার্কিং ব্যবস্থা। সিডিএ প্রথমবারের মতো নিউমার্কেট এলাকায় এটি স্থাপন করছে। এতে সময় অনুযায়ী ফি দিয়ে পরিশোধ করে গাড়ি মালিকরা নিরাপদে গাড়ি রাখতে পারবেন।