টমেটো বিপ্লবের নায়ক এলাহী

শীতকালীন টমেটো চাষ করে আর্থিকভাবে লাভবান হয়েছেন নওগাঁ জেলার কৃষক এলাহী সরদার। এই এলাকার সবজিচাষী হিসেবে ইতিমধ্যেই সফলতা পেয়েছেন তিনি। সবজির পাশাপাশি এ বছর তার ৪০ শতাংশ জমিতে টমেটোর আবাদ করে তিনি এই সুনাম অর্জন করেছেন। নওগাঁ জেলার আত্রাই উপজেলাধীন পুকুরপাড়া গ্রামের সফল কৃষক এলাহী সরদার। ৪০ শতাংশ জমিতে টমেটোর প্রায় ৪ হাজার চারা লাগিয়েছিলেন। গত নভেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহে জমিতে তিনি টমেটোর চারা রোপণ করেন। প্রায় ৫০ দিন পরিচর্যার পর ডিসেম্বর মাসের মাঝামাঝি থেকে টমেটো গাছে ফুল আসে এবং টমেটো ধরতে শুরু করে। টমেটো পাওয়া যাবে পুরো এপ্রিলজুড়ে। বর্তমানে প্রতিদিন তার জমি থেকে প্রায় দেড় মণ করে টমেটো তুলে বাজারে বিক্রি করছেন। পুরো মৌসুমে তার এই জমি থেকে প্রায় ৫০ থেকে ৬০ মণ টমেটো উৎপাদিত হয়েছে। বর্তমানে বাজারে প্রতি কেজি টমেটোর বিক্রি হচ্ছে ২০ টাকা। পাইকারি মূল্যে গড়ে ৭শ টাকা মণ দরে এই পরিমাণ টমেটোর মূল্য ৩৫ হাজার টাকা থেকে ৪০ হাজার টাকা। পরিচর্যা, সার, বীজ, কীটনাশকসহ এই জমিতে টমেটো চাষে খরচ হয়েছে প্রায় ৮ হাজার টাকা। সমুদয় খরচ বাদ দিয়ে তিনি এই মৌসুমে কেবলমাত্র টমেটো থেকে লাভ করছেনে প্রায় ৩০ হাজার টাকা। যা অন্য যে কোন ফসল থেকে এই অল্প সময়ে আয় কার সম্ভব নয়। বারি হাইব্রিড টমেটো-৪ জাতের এ টমেটো চাষে পরামর্শ ও সহযোগিতা দিয়েছেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের তারাটিয়া বস্নকের উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তা মো. শফি উদ্দিন আহম্মেদ। টমেটো চাষে তার এই সফলতা দেখে এলাকার আরো অনেকে টমেটো চাষ করতে এগিয়ে এসেছেন আগামীতে তারা এলাহী সরদারের মত টমেটো চাষ করবেন বলে জানিয়েছেন তিনি। সরেজমিনে টমেটোর ক্ষেত পরিদর্শন শেষে এ বিষয়ে সফল কৃষক এলাহী সরদারের সাথে কথা বললে তিনি জানান, বর্তমান আমার বয়স ৭৫ বছর আর আমি সারা বছর জমিতে বিভিন্ন রকম শাক-সবজি চাষ করে থাকি। এ বছর আমার জমিতে টমেটোর বাম্পার ফলন হয়েছে। কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের সহযোগিতা ও পরামর্শে আমার জমিতে টমেটো’র এই ফলন সম্ভব হয়েছে। এ বিষয়ে আত্রাই উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এ এম কাউছার হোসেন জানান, আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এ বছর আত্রাইয়ে উচ্চ ফলনশীল আগাম জাতের টমেটোর বাম্পার ফলন হয়েছে।উপজেলা কৃষি অফিসের পক্ষ থেকে কৃষকদের পরামর্শসহ বিভিন্ন ভাবে সহযোগিতা প্রদান করা হয়েছে। এখানকার জমিতে টমেটো চাষের অপার সম্ভাবনা রয়েছে। এ জন্য আত্রাই উপজেলার কৃষক দিন দিন টমেটো চাষে আগ্রহী হয়ে উঠছেন।
খবরটি পঠিত হয়েছে ১০১ বার