সেতুতে বদলে যাবে কৃষি অর্থনীতি

দীর্ঘদিনের প্রতীক্ষার পর নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের সনমান্দি ইউনিয়নের ভাটিচর ও নাজিরপুর গ্রামের সংযোগ সেতুর কাজের উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল সোমবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা প্রধান অতিথি হিসেবে এ সেতুর নির্মাণকাজের উদ্বোধন করেন। ৫৬ লাখ টাকা ব্যয়ে এ সেতুর নির্মাণকাজ করছে মাইক্রো এন্টারপ্রাইজ।

এ উপলক্ষে সনমান্দি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জাহিদ হাসান জিন্নাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সোনারগাঁ উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান নাসিমা আক্তার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শাহ আলম রুপন, সনমান্দি ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শাহাবুদ্দিন সাবু, ব্যবসায়ী হাজি আনোয়ার হোসেন, সনমান্দি ইউনিয়নের সদস্য মহিউদ্দিন, ফিরোজ হোসেন, মলি্লক হোসেন হিরু, কাজী লিটু, আবদুল কাদির জিলানী প্রমুখ।

এলাকাবাসী জানায়, ভাটিচর ও নাজিরপুর এলাকায় নাজিরপুর, ইমানের কান্দি, চরলাল, মগবাজার, নীলকান্দাসহ ১০ গ্রামের লক্ষাধিক লোকের যাতায়াত এ সড়কে। সড়ক থাকলেও নাজিরপুর খালে বাঁশের সাঁকো ব্যবহার করে স্থানীয়দের যাতায়াত করতে হয়। ফলে এলাকাবাসীকে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হয়। স্বাধীনতার পর থেকে সোনারগাঁয়ে জনপ্রতিনিধিরা এ সেতু বাস্তবায়নের আশ্বাস দিয়ে আসছিলেন; কিন্তু এতকাল তা আশ্বাসের মধ্যে সীমাবদ্ধ ছিল। বর্তমান এমপি লিয়াকত হোসেন খোকা সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই এ সেতু বাস্তবায়নের জন্য কাজ করে আসছিলেন। এরই অংশ হিসেবে ভাটিচর ও নাজিরপুর গ্রামের সংযোগ সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করে নির্মাণকাজ শুরু হয়েছে।

এলাকাবাসী আরও জানায়, এ অঞ্চল কৃষিপ্রধান। এ অঞ্চলের কৃষিপণ্য বিদেশে রফতানি হয়ে থাকে। কিন্তু সেতুর অভাবে জমি থেকে কৃষিপণ্য বাজারজাত করতে কৃষককে নানা সমস্যায় পড়তে হয়। এ সেতু বাস্তবায়ন হলে স্থানীয় কৃষকদের কৃষিপণ্য নিয়ে সমস্যায় পড়তে হবে না।

নাজিরপুর গ্রামের কৃষক তৈয়ব আলী ও মুনসুর মিয়া বলেন, আমরা শীতকালীন বিভিন্ন সবজি বিদেশে রফতানি করে থাকি। জমি থেকে এ ফসল উত্তোলন করে সরাসরি গাড়িতে ওঠাতে পারি না। এ সেতু বাস্তবায়ন হলে আমাদের উৎপাদিত পণ্য রফতানিতে বাধা থাকবে না। সহজেই পণ্য পরিবহনের মাধ্যমে ঢাকা পেঁৗছানো সহজ হবে।

সনমান্দি ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শাহাবুদ্দিন সাবু বলেন, এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি ছিল ভাটিচর ও নাজিরপুর গ্রামের সংযোগ সেতু। এ সেতু নির্মাণের জন্য একাধিকবার চেষ্টা করেছি। এতদিন সরকারি বরাদ্দ না পাওয়ায় এ সেতু বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়নি। সেতুর নির্মাণকাজ শুরু হয়েছে দেখে আমি খুবই আনন্দিত। এ সেতু বাস্তবায়ন হলে সবচেয়ে বেশি উপকৃত হবেন স্থানীয় কৃষকরা।

নাজিরপুর গ্রামের ব্যবসায়ী আনোয়ার হোসেন

জানান, এ সেতু নির্মাণ হলে এলাকাবাসীসহ স্থানীয় কৃষকরা সুফল পাবেন। নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা বলেন, সনমান্দি ইউনিয়নবাসীর দাবি বাস্তবায়ন হওয়ার পথে। অনেক জনপ্রতিনিধি এ সেতু বাস্তবায়নের চেষ্টা করেছেন। শেষ পর্যন্ত এর নির্মাণকাজ শুরু হয়েছে।