প্রতিবন্ধী চাকরি মেলা

খ্রিষ্টীয় নতুন বছরের প্রথম দিনে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে ঢাকায় হয়ে গেল চাকরি মেলা।

রোববার আগারগাঁওয়ে আইসিটি টাওয়ারে এই মেলায় চাকরির জন্য দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ছুটে আসেন তথ্য ও প্রযুক্তির কর্মমুখী শিক্ষায় শিক্ষিত কয়েকশ প্রতিবন্ধী তরুণ-তরুণী।

দুপুরে ফিতা কেটে মেলার উদ্বোধন করেন অটিজম বিষয়ক জাতীয় উপদেষ্টা পরিষদের চেয়ারপারসন সায়মা ওয়াজেদ হোসেন।

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, আইসিটি সচিব শ্যাম সুন্দর শিকদার, বিসিসির নির্বাহী পরিচালক এসএম আশরাফুল ইসলামসহ অন্যরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

আইসিটি বিভাগের সহযোগিতায় বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) ও সেন্টার ফর সার্ভিস অ্যান্ড ইনফরমেশন অন ডিজঅ্যাবিলিটি (সিএসআইডি) ২০১৪ সাল থেকে প্রতিবছর জানুয়ারিতে প্রতিবন্ধীদের জন্য এই চাকরি মেলার আয়োজন করছে। এবার ছিল তৃতীয় আয়োজন।

সিএসআইডির প্রকল্প সমন্বয়ক আক্তার হোসেন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, সাক্ষাতকার নেওয়ার পর এই মেলায় মোট ১৬০ জন প্রতিবন্ধীকে চাকরি দেওয়া হবে বলে বিভিন্ন কোম্পানির পক্ষ থেকে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে আউটসোর্সিং কোম্পানিগুলোর সংগঠন ‘বাক্য’ ৬০ থেকে ৭০ জনকে চাকরি দেবে বলেছে।

বিসিসির নির্বাহী পরিচালক এসএম আশরাফুল ইসলাম বলেন, প্রতিবন্ধীদের মূলধারায় অন্তর্ভুক্ত করণের সরকারের লক্ষ্য পূরণে চেষ্টা চালাচ্ছেন তারা। ইতোমধ্যে সিএসআইডির অধীনে ৫১১ জনকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। তাদের কর্মক্ষেত্রে যুক্ত করতে এ ধরনের মেলার আয়োজন।

গত দুই মেলায় ৯০ জনের বেশি প্রতিবন্ধী ব্যক্তির চাকরি হয়েছে বলে জানান তিনি।

প্রতিবন্ধীদের জন্য চাকরির সুযোগ নিয়ে আসা বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ‘মাই আউটসোর্সিং’র সিইও তানজিরুল বাশার জানান, তারা ৬০ থেকে ৭০ জন ব্যক্তির সাক্ষাৎকার নিয়েছেন। সেখানে অনার্স-মাস্টার্স পাস করা চাকরিপ্রার্থীও রয়েছেন।

তবে মেলা থেকে সুনির্দিষ্টভাবে কাউকে নিয়োগ দেওয়া হয়নি জানিয়ে তানজিরুল বলেন, “সারা বছরে বিভিন্ন প্রকল্প হাতে আসার পর আমাদের নতুন নতুন জনবলের প্রয়োজন হয়। তখন আমরা তাদের ডাকব।”

‘মাই আউটসোর্সিং’ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কলসেন্টার হিসাবে কাজের পাশাপাশি বিভিন্ন ডেটা এন্ট্রির কাজও করে। দিনে ৯ ঘণ্টা কাজ করে মাসে ৮ থেকে ১২ হাজার টাকা পর্যন্ত বেতন পান কর্মীরা।

মেলায় আসা আরেকটি প্রতিষ্ঠান সেবা ডট এক্সওয়াইজেড-এর মানব সম্পদ কর্মকর্তা আবু সুফিয়ান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, সামাজিক দায়বদ্ধতার চিন্তা মাথায় রেখেই তারা প্রতিবন্ধীদের চাকরি মেলায় এসেছেন।

৩০টির মতো সিভি পেয়েছেন জানিয়ে তিনি বলেন, এখন প্রয়োজন মতো লোক বাছাই করবেন।

তথ্য-প্রযুক্তি খাতে পাঁচ বছর ধরে কাজ করা ডিজিকন’র মানব সম্পদ কর্মকর্তা মেহেদী হাসান আকাশ বলেন, প্রায় ১৩০০ জনবল নিয়ে তাদের আউটসোর্সিং কোম্পানি চলছে। দুই মাস আগে বিজিএমইএ ভবনের একটি চাকরি মেলা থেকে তিনজন প্রতিবন্ধী ব্যক্তিকে চাকরি দেওয়া হয়েছে। এবারও সুবিধা মতো কয়েকজনকে নেওয়া হবে।

নারায়ণগঞ্জের আইটি প্রতিষ্ঠান ‘নিটা’ও মেলায় উপস্থিত হয়েছে কর্মী সংগ্রহ করার জন্য।

চাকরি মেলায় ঢাকা ছাড়াও বরগুনা, পাবনা, গাইবান্ধা, সিরাজগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা এসেছেন। সিআইডিএস ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের দেওয়া বিভিন্ন কম্পিউটার প্রোগ্রামের ওপর প্রশিক্ষণ নিয়েছেন তারা।