৫০ কোটি টাকার ফুল বিক্রির আশা যশোরের ফুলচাষীদের

বিজয় ও স্বাধীনতা দিবস, ২১ ফেব্রুয়ারি, ভালবাসা দিবস ও নববর্ষ এই ৫টি দিবসকে সামনে রেখে ফুলের বাজার ধরতে ব্যস্ত সময় পার করছেন যশোরের গদখালীর ফুলচাষীরা। পাশাপাশি চলতি মৌসুমে অতিবৃষ্টির কারণে যে ক্ষতি হয়েছে তা পুষিয়ে নিতে নিরন্তর চেষ্টা চালাচ্ছেন তারা। তাদের আশা, সব মিলিয়ে প্রায় ৫০ কোটি টাকার ফুল তারা বাজারজাত করতে পারবেন এই দিনগুলোতে।

যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার গদখালী পানিসারা ইউনিয়নসহ বেশ কয়েকটি ইউনিয়নের প্রায় ২ হাজার হেক্টর জমিতে বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদিত হচ্ছে রজনীগন্ধা, গোলাপ, জারবেরা, গাঁদা, জিপসি, চন্দ্রমল্লিকাসহ ১১ ধরনের ফুল।

সারা বছর বাজারে ফুল সরবরাহ করলেও এখানকার চাষিদের মূল টার্গেট বিজয় ও স্বাধীনতা দিবস, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস, ভালোবাসা দিবস ও নববর্ষ। এই পাঁচটি দিবসে ফুল বিক্রি করে মূলত সারা বছরের লাভ লোকসানের হিসেব মেলান তারা। তাই সময় মতো ফুলের বাজারজাত করতে এখন গাছ পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছেন ফুল চাষীরা।

ফুল চাষিরা জানান, গত আগস্টে অতিবৃষ্টির কারণে এবার চরম ক্ষতির শিকার হয়েছেন। অনেকের গাছ ও ফুল পচে গেছে। তারপরও ফুলের মূল বাজার ধরতে নতুন করে প্রস্তুত হচ্ছেন তারা। তাদের আশা ফুলের ভাল দাম পেলে ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পারবেন। আসন্ন পাঁচ দিবসে প্রায় ৫০ কোটি টাকার ফুল বিক্রির প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে বলে জানালেন বাংলাদেশ ফ্লাওয়ার সোসাইটি সভাপতি আব্দুর রহিম।

রিজার্ভ চুরির দায় বাংলাদেশ ব্যাংকের ॥ আরসিবিসি

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ রিজার্ভ চুরির ঘটনায় আবারও বাংলাদেশ ব্যাংককেই দায়ী করলো ফিলিপিন্সের রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকিং কর্পোরেশন- আরসিবিসি। এ ঘটনায় তাদের কোন দায় নেই- উল্লেখ করে মঙ্গলবার আরসিবিসির আইনজীবী থিয়া দায়েপ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, বাংলাদেশ ব্যাঙ্কেরই কয়েকজন কর্মকর্তা রিজার্ভ চুরির জন্য কম্পিউটার সিস্টেম খুলে দিয়েছিলেন।

তদন্ত কর্মকর্তারা রিজার্ভ চুরির জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের কিছু কর্মকর্তার দায়িত্বে অবহেলার প্রমাণ পেয়েছেন উল্লেখ করে ওই আইনজীবী বলেন, আরসিবিসিও এতদিন এ বিষয়টি বলে আসছে। বাংলাদেশ ব্যাংক নিজেদের উদাসীনতার দায়ভার অন্যের ওপর চাপাতে পারে না বলেও মন্তব্য আরসিবিসি।

গত ফেব্রুয়ারিতে বাংলাদেশের ব্যাংকের চুরি যাওয়া প্রায় ১০ কোটি ডলারের মধ্যে ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার, ম্যানিলা-ভিত্তিক রিজাল ব্যাংকের একটি শাখা হয়ে জুয়ার আসরে চলে যায়। পরে এক ক্যাসিনো মালিকের ফেরত দেওয়া মাত্র দেড় কোটি ডলার ফেরত পায় বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা উপেক্ষা করেই রিজাল ব্যাংক এ বিপুল পরিমাণ অর্থ ছাড় করায় তাদের কাছে ক্ষতিপূরণ দাবি করে বাংলাদেশ। তবে, নিয়ম মেনেই অর্থ ছাড়ের কথা জানায় আরসিবিসি।

Views: 20