সৈকতজুড়ে পুণ্যার্থীর ঢল

সাগরের নীল জলে ধুয়ে মুছে যাবে জাগতিক পাপ— এ মনোস্কামনায় আজ সকালে পূর্ণিমা তিথিতে সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে লাখো সনাতন ধর্মাবলম্বী নারী-পুরুষ কুয়াকাটা সমুদ্রের লোনা জলে পুণ্যস্নান করছেন। এ লক্ষ্যে গতকাল সকাল থেকেই সাধু, সন্ন্যাসীসহ দেশি-বিদেশি পুণ্যার্থীর ঢল নামে কুয়াকাটার সৈকতে।

গঙ্গাস্নানের মধ্য দিয়ে কলাপাড়ার শ্রীশ্রী মদন মোহন সেবাশ্রম প্রাঙ্গণে পাঁচ দিনব্যাপী দেশের সর্ববৃহৎ রাসমেলা উৎসব শুরু হচ্ছে। গঙ্গাস্নান ও রাসমেলা উৎসবকে ঘিরে কলাপাড়া ও পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটাকে আগেই নতুন রূপে সাজানো হয়েছে। ফলে পুরো সৈকত এখন পুণ্যার্থী ও দর্শনার্থীদের পদচারণায় মুখরিত রয়েছে।

কলাপাড়া রাসমেলা উদযাপন কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিকাশ চন্দ্র দাস জানান, কুয়াকাটায় পুণ্যস্নান শেষে পুণ্যার্থীরা কলাপাড়া পৌর শহরের শ্রীশ্রী মদনমোহন সেবাশ্রম প্রাঙ্গণে এসে রাঁধাকৃষ্ণের যুগল প্রতিমা দর্শন করবেন। গতকাল রাত ১২টা ১ মিনিটে ১৭ জোড়া যুগল প্রতিমা প্রতিষ্ঠাসহ অধিবাস অনুষ্ঠান করা হয়েছে। পাঁচ দিনের রাসমেলায় দূর-দূরান্ত থেকে আসা দোকানিরা বিভিন্ন মালের পসরা সাজিয়ে বসেছেন। উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, এ বছর রাসমেলা ও গঙ্গাস্নানে আগত পুণ্যার্থী ও দর্শনার্থীদের নিরাপত্তা সেবা প্রদানের জন্য র‌্যাব, পুলিশের পাশাপাশি রিজার্ভ ফোর্স কুয়াকাটার সৈকতে মোতায়েন করা হয়েছে। সুপেয় পানি, চিকিৎসা টিম, নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হয়েছে। এ ছাড়া সৈকতের জিরো পয়েন্ট থেকে চারদিকে দুই কিলোমিটারের মধ্যে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর টহল রাখার পাশাপাশি পুরো এলাকা সিসি ক্যামেরার আওতায় রাখা হয়েছে।

Views: 16