‘ঢাকা চাকা’ বাস সার্ভিস চালু হচ্ছে আজ

রাজধানীর কূটনৈতিক এলাকার নিরাপত্তার স্বার্থে ও যাত্রীদের স্বাচ্ছন্দ্যময় যাতায়াত নিশ্চিতের জন্য শীতাতপ বাস সার্ভিস ‘ঢাকা চাকা’ আজ বুধবার চালু হবে। গুলশান, বারিধারা, বনানী ও নিকেতন সোসাইটির উদ্যোগে এর বাস্তবায়ন করছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন।
একই সঙ্গে ওই এলাকায় নির্ধারিত রঙের রেজিস্ট্রেশনকৃত ও নির্ধারিত ভাড়ায় রিকশা সার্ভিস চালু হবে। শীতাতপ বাস সার্ভিসের ভাড়া ১৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে দুটি রুটে ১০টি এসি বাস ও ৫০০টি রিকশা নামানো হবে।
গুলশানে জঙ্গি হামলার পর এ এলাকা দিয়ে চলাচলকারী সব রুটের গণপরিবহন বন্ধ করে দেয় প্রশাসন। সীমিত করা হয় রিকশা চলাচলও। এতে বিপাকে পড়তে হয় সাধারণ মানুষকে।
প্রাথমিক পর্যায়ে বাসের দুটি রুট ঠিক করা হয়েছে। প্রথমটি গুলশান পুলিশ প্লাজা কনকর্ড থেকে গুলশান ১ ও দুই নম্বর গোলচত্বর হয়ে বনানী পর্যন্ত। দ্বিতীয় রুট গুলশান নতুনবাজার থেকে শুরু হয়ে ২ নম্বর গোলচত্বর হয়ে বনানী পর্যন্ত। প্রতি ১০ মিনিট অন্তর এসি বাস চলবে এই দুটি রুটে।
এ এলাকার চারটি সোসাইটির এলাকাতেও এখন থেকে চলবে দুই ধরনের নতুন রিকশা। প্রাথমিকভাবে গুলশানে ২০০, বনানীতে ২০০ এবং বারিধারা ও নিকেতনে ৫০টি করে রিকশা নামানো হচ্ছে। এসব রিকশা চলাচলের বিষয়ে বেশ কিছু নিয়মও ঠিক করে দেওয়া হয়েছে।
বিশেষ পরিবহন ব্যবস্থাকে স্বাগত জানিয়েছেন স্থানীয়রা। তারা বলেন, মনিটরিংয়ের অভাবে সাধারণ মানুষকে যেন ঝামেলায় পড়তে না হয় সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে কর্তৃপক্ষকে।
ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন মেয়র আনিসুল হক বলেন, নিরাপত্তার সঙ্গে যাতায়াতের একটি সম্পর্ক রয়েছে। গুলশানে এখন পেছন দিক থেকে অনেক রিকশা আসে। তাই গুলশানের ভিতরে রিকশা কমিয়ে দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু আমরা বিশেষ রঙের পাঁচ’শ রিকশা চালু করেছি। এখন থেকে ওই রিকশা গুলশান এলাকায় চলাচল করবে। গুলশানের নিরাপত্তার জন্য কী কী করা উচিত, কী উচিত না, সেটি সময়ের সঙ্গে সঙ্গে নির্ধারণ করা হবে।
নতুন পরিবহন ব্যবস্থা কূটনৈতিক এলাকায় বসবাসকারীদের নিরাপত্তায় বিশেষ ভূমিকা রাখার পাশাপাশি যানজট নিরসন ও নগরবাসীর চলাচল স্বাচ্ছন্দ্যময় করবে বলে আশা প্রকাশ করেন।