ঢাকায় পানি সরবরাহে ২৭ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে এডিবি

ঢাকায় পানি সরবরাহে দক্ষতা বাড়াতে ২৭ কোটি ৭৫ লাখ ডলার ঋণ দিচ্ছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। এ অর্থ ঢাকা ওয়াটার সাপ্লাই নেটওয়ার্ক ইমপ্রুভমেন্ট প্রকল্প বাস্তবায়নে ব্যয় করা হবে। এই লক্ষ্যে গতকাল সরকার ও এডিবির মধ্যে একটি ঋণচুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে। রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন ইআরডির সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ মেজবাহউদ্দিন এবং এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টর কাজুহিকো হিগুচি। এছাড়া প্রকল্প চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাসকিন এ খান ও কাজুহিকো হিগুচির মধ্যে। মেজবাহউদ্দিন বলেন, পানির অপচয় লক্ষণীয় পর্যায়ে হ্রাসকরণ, সকল গ্রাহক সংযোগ মিটার ভিত্তিকরণ এবং জাতীয় পর্যায়ে পানি সাশ্রয়ের লক্ষ্যে ঢাকা ওয়াসার ৭টি জোনে পানি সরবরাহ নেটওয়ার্ক শক্তিশালীকরণ ও ৮২টি নতুন ডিস্ট্রিক্ট মিটারিং এরিয়া প্রতিষ্ঠাকরণ। নন রিভিনিউ ওয়াটার রিডাকশন প্ল্যান প্রস্তুতকরণ এবং প্রতিষ্ঠিত ডিএমএসমূহে লাগসই প্রযুক্তি সুপারভাইজরি কন্ট্রোল অ্যান্ড ডাটা ইকুইজিশন সিস্টেম অন্তর্ভুক্তির মাধ্যমে ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা ও কারিগরি দক্ষতা বৃদ্ধি করা হবে। তিনি বলেন, সার্বক্ষণিক (২৪/৭) প্রেসারাইজড সিস্টেমে নিরাপদ পানি সরবরাহ নিশ্চিত করার জন্য ওয়াটার কোয়ালিটি মনিটরিং সিস্টেমের মাধ্যমে ঢাকা ওয়াসার সেবা প্রদানে ক্ষমতা বৃদ্ধি করা হবে। এডিবির কাজুহিকো হিগুচি বলেন, এডিবি বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান উন্নয়ন সহযোগী। এডিবি এযাবৎ বাংলাদেশকে ১৬ বিলিয়ন ডলারের অধিক ঋণ সহায়তা দিয়েছে। এডিবির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ২০১৫ সালে ঢাকা শহরে দৈনিক পানির চাহিদা ছিল ২ হাজার ১৪৪ মিলিয়ন লিটার। সেটি বেড়ে ২০২২ সাল নাগাদ দাঁড়াবে দৈনিক ২ হাজার ৬১৬ মিলিয়ন লিটারে। তাই পানি সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের সক্ষমতা বাড়ানোর উদ্যোগে সহযোগিতা দিচ্ছে এডিবি। অনুমোদনকৃত নতুন ঋণে নেয়া প্রকল্প আগামী ৫ বছরে অর্থাৎ ২০২১ সালের জুনের মধ্যে বাস্তবায়নের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। এডিবির ঋণের সঙ্গে কাউন্টারপার্ট হিসেবে সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে ১৩ কোটি ৩০ লাখ ডলার ব্যয় করা হবে। এ ঋণের সুদের হার হবে লন্ডন ইন্টারব্যাংক অফার রেট (লাইবর) ভিত্তিক। ৫ বছরের রেয়াতি মেয়াদসহ ২০ বছরে পরিশোধ করতে হবে।