ভোটার হওয়ার আনন্দে নাচছে বিলুপ্ত ছিটবাসী

দীর্ঘ ৬৮ বছরের বন্দিদশা থেকে বাংলাদেশি পরিচয়ে সদ্য মুক্ত হওয়া ১১১টি বিলুপ্ত ছিটমহলের অর্ধ লক্ষাধিক বাসিন্দা প্রথমবারের মতো ভোটার হচ্ছেন। তাদের ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্তির জন্য নির্বাচন কমিশন জোরালোভাবে কাজ করছে।
চলতি মাসের ২৬ জুন তথ্য সংগ্রহকারী সুপারভাইজার নিয়োগ দেয়া হবে। এরপর আগামী ১০ জুলাই থেকে ১৬ জুলাই পর্যন্ত বিলুপ্ত ছিটমহলের বাসিন্দাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটার তালিকার কাজ শুরু হবে। ১৭ জুলাই থেকে ২৫ জুলাই ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত বিলুপ্ত ছিটমহলবাসীর ছবি তোলা, ১ আগস্ট ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্তদের খসড়া তালিকা প্রকাশ ও ৪ সেপ্টেম্বর চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে।
ইতোমধ্যে লালমনিরহাট, পঞ্চগড়, নীলফামারী ও কুড়িগ্রামের আওতাধীন বিলুপ্ত ছিটমহলগুলোতে ভোটার তালিকা প্রণয়নের জন্য নির্বাচন কমিশন থেকে সংশ্লিষ্ট জেলা নির্বাচন অফিসে নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে।
দীর্ঘদিন পর ভোটার তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্তির খবর শুনে বিলুপ্ত ছিটমহলগুলোর বাসিন্দাদের মাঝে দেখা দিয়েছে আনন্দ উল্লাস। তারা বাংলাদেশের জাতীয় পরিচয়পত্র পাবেন। এখন থেকে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে পারবেন। এই বিষয়টি তাদেরকে গর্বিত করছে।
কুড়িগ্রামের বিলুপ্ত ১২টি ছিটমহলের বাসিন্দাদের মাঝে এ আনন্দ ছড়িয়ে পড়েছে। ভুরুঙ্গামারী উপজেলার ১০টি বিলুপ্ত ছিটমহল ছোট গাড়লডোবা, বড় গাড়লডোবা, দিগলটারী-১, দিগলটারী-২, গাও চুলকা, গাও চুলকা-১, গাও চুলকা-২, সাহেবগঞ্জ, শিউটি কুর্ষা ও বোর্ডের হাটের সর্বত্র এ আনন্দ বিরাজ করছে।
এর মধ্যে ঘনবসতিপূর্ণ বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ারছড়ার বাসিন্দারা আনন্দে নাচছেন। তারা বলছেন, তাদের আন্দোলনের ফসল আজ পাচ্ছেন। ছিটমহল বিনিময় চুক্তি বাস্তবায়ন আন্দোলন এই দাসিয়ারছড়া থেকেই শুরু হয়েছিল। আন্দোলন সফল হওয়ায় তারা গর্বিত।
বিলুপ্ত ছিটমহল দাসিয়ারছড়ার বাসিন্দা কলেজ ছাত্র হুমায়ুন কবীর (২৫) বলেন, নিজ মাতৃভূমি দাসিয়ারছড়া থেকে বাংলাদেশের পূর্ণাঙ্গ নাগরিক হিসেবে প্রথমবারের মতো ভোটার হবেন এটা ভাবতে খুব আনন্দ লাগছে।
ওই এলাকার আরেক বাসিন্দা মনির হোসেন (৬৫) বলেন, তারা এখন স্বাধীন বাংলাদেশের নাগরিক। এ দেশের নাগরিক হয়ে তারা প্রথমবারের মতো ভোটার তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্তির সুযোগ পাচ্ছেন। এটা আনন্দের বিষয়।
তিনি বলেন, আগে নাম-পরিচয় গোপন রেখে চলাচল করতে হতো। ভোটার তালিকায় নাম উঠলে জাতীয় পরিচয়পত্র সঙ্গে নিয়ে নিজের পরিচয় দিতে পারবেন।
ছিটমহল বিনিময় চুক্তি বাস্তবায়ন আন্দোলনের সংগঠন ছিটমহল বিনিময় সমন্বয় কমিটির বাংলাদেশ ইউনিটের সাবেক সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা বলেন, তাদের দীর্ঘদিনের আন্দোলনের ফসল তারা এখন ঘরে বসে পাচ্ছেন। বিলুপ্ত ছিটমহলবাসী আজ বাংলাদেশের পূর্ণাঙ্গ নাগরিক হিসেবে ভোটার তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত করবে। এটা তাদের জন্য মহাখুশির খবর।
বিলুপ্ত ছিটমহলের প্রত্যেক নাগরিক যাতে তার জন্মস্থান থেকে ভোটার তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত করতে পারে এজন্য তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন। পাশাপাশি ভোটার তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্তির জন্য বিলুপ্ত ছিটমহলগুলোতে ব্যাপক প্রচারণার দাবি জানান তিনি।
এ ব্যাপারে কুড়িগ্রাম জেলা নির্বাচন অফিসার দেলোয়ার হোসেন জানান, নির্বাচন কমিশন থেকে কুড়িগ্রামের ১২টি বিলুপ্ত ছিটমহলে ভোটার তালিকা অন্তর্ভুক্তির নির্দেশনা এসেছে। আগামী মাসের ১০ জুলাই থেকে এখানকার বিলুপ্ত ছিটমহল বাসিন্দাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটার তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্তির কাজ শুরু হবে।
গত বছরের ১ আগস্ট বাংলাদেশ-ভারত ছিটমহল বিনিময় কার্যকর হওয়ায় ছিটমহল নামে ১১১টি জনপদ বাংলাদেশের ভূখ-ে পরিণত হয়। এর মধ্যে কুড়িগ্রাম জেলার ফুলবাড়ী উপজেলা ও ভূরুঙ্গামারী উপজেলায় ১২টি বিলুপ্ত ছিটমহল রয়েছে। জেলার ১২টি বিলুপ্ত ছিটমহলের ৭ হাজার ৭৪৭ অধিবাসী সে সময় নাগরিকত্ব পেলেও পাননি ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ। বিলুপ্ত ছিটমহলের অধিবাসীরা যাতে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেন সেজন্য রংপুর বিভাগের ৪ জেলার ২৭টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন স্থগিত রেখেছে নির্বাচন কমিশন।