মহেশখালীতে হচ্ছে ১ হাজার ৩২০ মেগা. বিদ্যুৎকেন্দ্র

কঙ্বাজারের মহেশখালীতে স্থাপন করা হচ্ছে এক হাজার ৩২০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন কয়লাভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র। এই বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনে মালয়েশিয়ার সঙ্গে চুক্তি করতে যাচ্ছে সরকার। মালয়েশিয়ার সঙ্গে যৌথভাবে এ বিদ্যুৎ প্রকল্পটি স্থাপনে একটি চুক্তির খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।
গতকাল সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভা বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের এ কথা জানান।
তিনি বলেন, ‘কঙ্বাজারের মহেশখালীতে এক হাজার ৩২০ মেগাওয়াট কয়লাভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনে ‘বাংলাদেশের পাওয়ার ডেভেলপমেন্ট বোর্ড’ (পিডিবি) ও মালয়েশিয়ার কনসোর্টিয়াম অব তেনাগা নাসিওনাল বেরহাদ অ্যান্ড পাওয়ারটেক এনার্জি এসডিএন বেরহাদের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষরের খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।’
মূল প্রকল্পটি চলমান আছে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘এটি পিডিবি দেখছে। মালয়েশিয়ার মন্ত্রিসভায় খসড়াটি ইতোমধ্যে অনুমোদন দিয়েছে। আমাদের অংশটি পাস করার পর এখন দু’পক্ষ আনুষ্ঠানিকভাবে চুক্তি স্বাক্ষর করবে। এতে পিডিবির ৫০ ভাগ ও মালয়েশিয়ার প্রতিষ্ঠানের ৫০ ভাগ শেয়ারের মালিকানা থাকবে।’
এছাড়াও মন্ত্রিসভা বাংলাদেশ ও কুয়েতের মধ্যে স্বাক্ষরিত ভিসা অব্যাহতি চুক্তি অনুসমর্থনের প্রস্তাব অনুমোদন করেছে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘এতে বাংলাদেশ ও কুয়েতের কূটনৈতিক, বিশেষ ও অফিশিয়াল পাসপোর্টধারীরা ভিসা ছাড়া দু’দেশ ভ্রমণ করতে পারবেন।
বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি দল কুয়েতে আছে জানিয়ে সচিব বলেন, ‘এটা অব্যাহত রাখতে দুই দেশের মধ্যে স্বাক্ষরের জন্য একটি চুক্তির খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।’