গুলশান বারিধারায় বসছে ৩ হাজার সিসি ক্যামেরা

গুলশান, বারিধারা, বনানী, নিকেতন সোসাইটিসহ ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি) এলাকায় ৩ হাজার সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন কার্যক্রমের উদ্বোধন করেছেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। গতকাল গুলশান ইয়ুথ ক্লাবে এক অনুষ্ঠানে তিনি এই কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিত থাকার কথা ছিল। এই প্রকল্পের আওতায় ডিএনসিসি এলাকাগুলোতে সর্বাধুনিক কন্ট্রোল রুমসহ মোট ৩ হাজার ক্যামেরা স্থাপন করা হবে। ইতিমধ্যে ৬৪২টি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। ক্যামেরাগুলো ৩ থেকে ১৬ মেগা পিক্সেল রেজুলেশনের উচ্চক্ষমতাসম্পন্ন। এছাড়াও অন্ধকার এবং কুয়াশাচ্ছন্ন আবহাওয়ার স্পষ্ট ছবি ক্যাপচার করতে সক্ষম। গুরুত্বপূর্ণ স্থানে স্থাপিত কয়েকটি ক্যামেরা রাস্তায় চলাচলরত যানবাহনের ‘নম্বর প্লেট’ এর ছবি ক্যাপচার ও সংরক্ষণ করতে পারবে। প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্পিকার বলেন, সিসি ক্যামেরা যেমন মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে পাশাপাশি কোথাও যানজট, ময়লা আর্বজনা স্তূপ হয়ে থাকলে তা সিসি ক্যামেরার আওতায় আসবে। তিনি আরো বলেন, প্যানিক বাটন কার্যক্রম পরীক্ষামূলকভাবে গুলশানে ইতিমধ্যে চালু করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে আসার সময় দেখলাম একজন ব্যক্তির গাড়ি হারিয়ে গেলে তিনি প্যানিক বাটন চাপেন। এতে পুলিশের কন্ট্রোল রুম থেকে তাৎক্ষণিকভাবে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আনিসুল হক বলেন, সবাই বলে ঢাকা বিশ্বে বাজে শহরের মধ্যে অন্যতম। আমি মনে করি ঢাকা বিশ্বের মধ্যে অন্যতম সেরা শহর। কারণ এখানে অনেক লোকের সমাগম। এছাড়া উত্তর সিটি কর্পোরেশন এলাকায় একটি অ্যাপস চালু করা হয়েছে। তিনি বলেন, দায়িত্ব গ্রহণের এক বছরের মধ্যে ২৬ লাখ ৯০ হাজার লোক ম্যাসেজ দিয়ে কাজের প্রশংসা, পরামর্শ দিয়েছেন। উদ্বোধনের আগে স্পিকার সিসিটিভি কন্ট্রোল রুমে গিয়ে এই প্রকল্পের কার্যক্রম পরিদর্শন করেন। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) ট্রাফিক বিভাগের কর্মকর্তা ও ডিএনসিসি মেয়র আনিসুল হক তাকে সিসিটিভি কন্ট্রোল রুমের কার্যক্রম সম্পর্কে ব্রিফ করেন। ডিএনসিসির এই প্রকল্পে সহায়তা করেছেন গুলশান, বারিধারা, বনানী, নিকেতন সোসাইটি, গুলশান ইয়ুথ ক্লাব, এলওসিসি, ডিএমপি। সিসিটিভি কার্যক্রমের পাশাপাশি নাগরিক সেবা সবার দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে ডিজিটাল-ডিএনসিসি-অ্যাপ উদ্বোধন করা হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) একেএম শহীদুল হক, র‌্যাবের মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ, ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র সাঈদ খোকন ও সংসদ সদস্য একেএম রহমতুল্লাহ প্রমুখ।