‘বাংলাদেশে জনগণ সকল মৌলিক অধিকার ভোগ করছে’

বাংলাদেশে গণমাধ্যম পূর্ণ স্বাধীনতা ভোগ করছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার বাক-স্বাধীনতাসহ জনগণের সকল মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করতে অত্যন্ত নিষ্ঠাবান বলেই তা সম্ভব হয়েছে।

আজ জাতিসংঘে কমিটি অন ইনফরমেশনের ৩৮তম অধিবেশনে বাংলাদেশ প্রতিনিধি একথা বলেন।

প্রতিনিধি বলেন, বাঙালি জাতির মহান স্বাধীনতা অর্জনের এক বছরের মধ্যেই ১৯৭২ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে প্রণীত বাংলাদেশের সংবিধানে জনগণের বাক-স্বাধীনতা নিশ্চিত করা হয়েছে। এলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ২০০৯ সাল থেকে বেশকিছু পদক্ষেপ বাস্তবায়ন করেছে। মানহানিকর কিছু লেখা বা বলার দায়ে সাংবাদিক, লেখক বা অন্যান্যের বিরুদ্ধে সরাসরি গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির ফৌজদারি কার্যবিধির বিধান বাতিল করেছে।

বাংলাদেশে এখন মিডিয়াভুক্ত ৪২৮টি দৈনিক পত্রিকা প্রকাশিত হচ্ছে। এর মধ্যে ১৭২টিই প্রকাশিত হচ্ছে ঢাকা থেকে। সব মিলিয়ে সহস্রাধিক পত্রিকা প্রকাশিত হচ্ছে। বর্তমান সরকার ৩২টি নতুন বেসরকারী টিভি চ্যানেল, ২৪টি এফএম এবং ৩২টি কমিউনিটি রেডিও স্থাপনের লাইসেন্স দিয়েছে। দুঃস্থ সাংবাদিকদের সাহায্যে ২০১৪ সালে সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট আইন প্রণয়ন করেছে। তথ্য অধিকার আইন প্রণয়ন করেছে এবং তথ্য কমিশন গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর তথ্য প্রাপ্তির অধিকার নিশ্চিতেও তৎপর রয়েছে।

কমিটি অন ইনফরমেশনের এই বার্ষিক সেশন গতকাল শুরু হয়েছে। চলবে ৬ মে পর্যন্ত।