ডিএসইতে বুধবার থেকে চালু হচ্ছে মোবাইল লেনদেন

আগামী বুধবার (৯ মার্চ) ‘ডিএসই-মোবাইল’ অ্যাপস চালু করতে যাচ্ছে দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)। এ অ্যাপস চালু হলে বিনিয়োগকারীরা মোবাইলের মাধ্যমেই শেয়ার লেনদেন করতে পারবেন।

রবিবার ডিএসই কার্যালয়ে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে এ তথ্য জানান ডিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক অধ্যাপক ড. স্বপন কুমার বালা।

তিনি বলেন, আগামী ৯ মার্চ অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ‘ডিএসই-মোবাইল’ অ্যাপসটির উদ্বোধন করবেন। ফেব্রুয়ারি মাসেই মোবাইল অ্যাপসটি উদ্বোধন করার কথা ছিল। কিন্তু অর্থমন্ত্রী দেশের বাইরে থাকায় তা সম্ভব হয়নি, বলেও উল্লেখ করেন ড. স্বপন কুমার বালা।

সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ডিএসইর প্রধান অর্থ কর্মকর্তা (সিএফও) আব্দুল মতিন পাটোয়ারী, প্রধান নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা (সিআরও) এ কে এম জিয়াউল হাসান খান প্রমুখ।

ডিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক আরও বলেন, মোবাইল অ্যাপস চালু হলে বিনিয়োগকারীরা যে কোনো জায়গা থেকে মোবাইলের মাধ্যমে শেয়ারবাজারে লেনদেন করতে পারবেন। এতে বাজারে বিনিয়োগকারীদের লেনদেন প্রক্রিয়া সহজ হবে।

ড. স্বপন কুমার বালা বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ব্রোকারেজ হাউজের নতুন শাখা খোলার প্রক্রিয়া বন্ধ রয়েছে। এ কারণে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে বিনিয়োগকারী গড়ে ওঠার প্রক্রিয়া কিছুটা বাধাগ্রস্ত হচ্ছিল। কিন্তু ‘ডিএসই-মোবাইল’ অ্যাপস চালু হলে সে সমস্যার সমাধান হবে।

মোবাইলে লেনদেনের বিষয়ে ইতোমধ্যে ডিএসই ২৩৪ ব্রোকারেজকে প্রশিক্ষণ দিয়েছে জানিয়ে ডিএসইর এমডি ড. স্বপন কুমবার বালা বলেন, বিএসইসির উদ্যোগে প্রশিক্ষণ দেয়ার জন্য গঠিত টেকনিক্যাল কমিটির মাধ্যমে বিনিয়োগকারীদেরকেও মোবাইল লেনদেনের বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।

সাংবাদিক সম্মেলনে ‘ডিএসই-মোবাইল’ অ্যাপস বিষয়ক একটি নিবন্ধ উপস্থাপন করেন ডিএসইর উপ-মহাব্যবস্থাপক নিজাম উদ্দিন। এসময় তিনি বলেন, বিনিয়োগকারীরা এই অ্যাপসের মাধ্যমে নিজেই ক্রয়-বিক্রয়ের নির্দেশ দিতে পারবেন। তবে অ্যাপসটি চালু করতে হলে ডিলার ও ব্রোকারেজ হাউজের প্রধান অফিস বা শাখা অফিসে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, বিনিয়োগকারী যদি নিয়মের মধ্যে থেকে ক্রয়-বিক্রয়ের নির্দেশ দেন তাহলে তা স্বয়ংক্রিয়ভাবে সম্পন্ন হয়ে যাবে। লেনদেন নিষ্পন্ন হওয়ার বিষয়ে নোটিফিকেশনও পাবেন। তবে কোনো বিনিয়োগকারী যদি নিয়মবহির্ভূতভাবে কোনো শেয়ার ক্রয় বা বিক্রয়ের অর্ডার দেন তাহলে ব্রোকারেজ হাউজ তা বন্ধ করতে পারবে।

এক প্রশ্নের জবাবে নিজাম উদ্দিন জানান, বিনিয়োগকারীরা আগামী কয়েক মাস কোনো চার্জ ছাড়াই এ অ্যাপস ব্যবহার করতে পারবেন। আগামীতে ডিএসই ফি ধার্য করতে পারে। সে ক্ষেত্রে ডিএসই ব্রোকারদের কাছ থেকে ফি নিবে। আর ব্রোকার বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ফি আদায় করবে। মোবাইলে ‘রবি’ গ্রাহকরা ট্রেড চলাকালীন ফ্রি ডাটা সার্ভিস পাবেন বলে উল্লেখ করেন তিনি।

মোবাইল লেনদেনের নিরাপত্তা বিষয়ক এক প্রশ্নের জবাবে নিজাম উদ্দিন বলেন, নিরাপত্তার স্বার্থে প্রতিবার ক্রয় বা বিক্রয় আদেশ দেয়ার সময় বিনিয়োগকারীকে পাসওয়ার্ড দিতে হবে। তাই মোবাইল নিয়ে যে কেউ ক্রয় বা বিক্রয় আদেশ দিতে পারবে না। তাছাড়া অ্যাপস ১০ মিনিট সচল না থাকে তবে স্বয়ংক্রিয়ভাবে অ্যাকাউন্ট লগ আউট হয়ে যাবে।