দেশে বাড়ছে সৌর বিদ্যুতের ব্যবহার

চাহিদার তুলনায় বিদ্যুতের উৎপাদন ঘাটতি থাকায় কয়েক বছর ধরেই বাড়ছে নবায়নযোগ্য জ্বালানি সৌরবিদ্যুতের ব্যবহার। আর ব্যবসা হিসেবে লাভজনক হওয়ায় এ খাতে বিনিয়োগে এগিয়ে আসছেন উদ্যোক্তা ও অর্থায়নকারী প্রতিষ্ঠানও।

তবে দীর্ঘমেয়াদী সুফল পেতে সোলার হোম সিস্টেম থেকে সরে এসে জাতীয় সঞ্চালন লাইনে দেয়ার মতো বড় পরিসরে সৌরবিদ্যুত উৎপাদনের দিকে নজর দেয়া দরকার বলে মনে করেন বিশ্লেষকরা। মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইর উপজেলা সদর থেকে প্রায় ৯ কিলোমিটার পূর্বে, ফোর্ডনগরের মুদি ব্যবসায়ী আক্কাস মোল্লা। কয়েকদিন আগেও যার দোকানে টিভি-ফ্রিজ এমনকি ছিল না পর্যাপ্ত আলোও। সন্ধ্যাবেলাতেই বন্ধ করে দিতেন দোকান। এখন সৌরবিদ্যুতের সংযোগ নেয়ার পর পাল্টে গেছে তার ব্যবসার ধরন। তার দোকানের পাশে স্থাপিত সৌরবিদ্যুত কেন্দ্র থেকে বিদ্যুত সুবিধা নিয়ে লাভের কথা জানালেন পোল্ট্রি ও ডেইরি ফার্মের মালিক বাহাদুরও। লাভজনক বিবেচনায় নতুন প্রযুক্তি ও পরিকল্পনা নিয়ে উদ্যোক্তারা যেমন এগিয়ে আসছেন সৌরবিদ্যুতখাতে বিনিয়োগ করতে, তেমনি তাদের আর্থিক সহায়তা করতে এগিয়ে আসছে বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠানও।

এদিকে, সোলার হোম সিস্টেম জনপ্রিয় হলেও, ক্রমবর্ধমান জ্বালানি চাহিদা মোকাবেলায় গ্রীডভিত্তিক সৌরবিদ্যুত উৎপাদনে, বড় পরিসরে সরকারী- বেসরকারী উদ্যোগ নেয়ার তাগিদ দিচ্ছেন ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট অব এনার্জি পরিচালক ড. সাইফুল হক। দেশে বর্তমানে সোলার হোম সিস্টেমের আওতায় বিদ্যুত সুবিধা পাচ্ছে দেড় কোটির বেশি মানুষ। আর চলতি বছর আরও তিন কোটি লোককে এই সিস্টেমের আওতায় নিয়ে আসার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানালেন বিশ্লেষকরা।

ভেনেজুয়েলায় ২০ বছরের মধ্যে প্রথম তেলের দাম বৃদ্ধি

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ ভেনেজুয়েলায় জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট নিকোলা মাদুরো। গত ২০ বছরের মধ্যে এই প্রথমবার তেলের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিল দেশটির সরকার।

ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ানের অনলাইনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ভেনেজুয়েলার বৈদেশিক আয়ের ৯৫ শতাংশ আসে তেল বিক্রি থেকে। বিশ্ববাজারে তেলের দরপতনে দেশটির অর্থনীতির সংকোচন ঠেকাতে পণ্যটির দাম বাড়িয়ে মুদ্রার বিনিময় মূল্য কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নিকোলা মাদুরো।

সিএনএনের খবরে বলা হয়, ভেনেজুয়েলায় অকটেনের দাম এক বলিভার (১২.৩৬ টাকা) থেকে প্রায় ১২ গুণ বাড়িয়ে ছয় বলিভার করার ঘোষণা দিয়েছেন নিকোলা মাদুরো। ভর্তুকির কল্যাণে ২০ বছর ধরে দেশটির তিন কোটি নাগরিক প্রতি গ্যালন জ্বালানি চার সেন্টে কিনতে পারতেন। নিকোলা মাদুরোর ঘোষণার ফলে স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার থেকে দেশটিতে খাদ্য ও ওষুধ পণ্য আমদানি করতে এক ডলারের বিপরীতে ১০ বলিভার খরচ করতে হবে। এতে জ্বালানির দাম আগের চেয়ে প্রায় তিন গুণ বাড়বে। ভেনেজুয়েলার সাবেক প্রেসিডেন্ট হুগো শাভেজ সামাজিক বিপ্লবের মাধ্যমে ক্ষমতায় আরোহণের পর প্রায় ১৭ বছরে কোন গণতান্ত্রিক দল দেশটি শাসন করতে পারেনি। তবে চলতি বছরের জানুয়ারিতে দেশটির বিরোধী দল নির্বাচনের মাধ্যমে কংগ্রেস নিয়ন্ত্রণে নেয়। ওই মাসে নিকোলা মাদুরো ‘অর্থনৈতিক জরুরী অবস্থা ঘোষণা’ দিলে তাতে অনুমোদন দেয়নি বিরোধীরা। তবে ১২ ফেব্রুয়ারি দেশটির সুপ্রমীকোর্ট নিকোলার অর্থনৈতিক জরুরী অবস্থার অনুমোদন দিয়ে রায় দেন।