ওয়ার্ল্ড মিস ইউনিভার্সিটিতে বাংলাদেশি অবনী

আমি আমার

সর্বোচ্চটা চেষ্টা করবো ভালো

করার। বাকিটা আল্লাহ ভরসা।

আমি দেশবাসীর কাছে দোয়া চাচ্ছি যাতে আমি ভালো করতে পারি, দেশের জন্য সুনাম বয়ে আনতে পারি

n

মহিলা অঙ্গন প্রতিবেদক

‘ওয়ার্ল্ড মিস ইউনিভার্সিটি-২০১৬’ প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছেন বাংলাদেশের আহসানউল্লাহ ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স এ্যান্ড টেকনোলজির শিক্ষার্থী মুঞ্জারিন মাহবুব অবনী। চীনের বেজিং শহরে সারা বিশ্বের ৭০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৭০ জন প্রতিযোগী এ প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছেন। সেখানে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করবেন অবনী। ১৯৮৬ সাল থেকে এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হচ্ছে।

অবনী আহসানউল্লাহ ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স এ্যান্ড টেকনোলজির চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী। ২০১৪ সালে র্যাম্পের মাধ্যমে ক্যারিয়ারে যাত্রা শুরু করেন। এরপর বিজ্ঞাপনচিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমেই মিডিয়াতে তার পথচলা শুরু। শুরুতেই দেশের শীর্ষ মোবাইল অপারেটর গ্রামীণফোনের টেলিভিশন বিজ্ঞাপনচিত্রে কাজ করে সংশ্লিষ্টদের নজরে আসেন। গ্রামীণফোনের ১ পয়সা প্রতিসেকেন্ডের বিজ্ঞাপনটির ছবির বিলবোর্ড দেশজুড়ে শোভা পাচ্ছে। ইতিমধ্যে এই বিজ্ঞাপনচিত্রের জন্য অবনী পেয়েছেন ‘সাঁকো টেলিফিল্ম এ্যাওয়ার্ড’।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, আমি আমার সর্বোচ্চ দিয়ে চেষ্টা করব। প্রতিযোগিতায় শুধু সৌন্দর্য নয় বরং তাত্ক্ষণিক পারফমেন্সের বিষয়টিও থাকবে। আরো থাকবে আইকিউ পরীক্ষা। সব মিলে জমজমাট একটি আয়োজন। এখানে নিজেকে শারীরিক এবং মানসিকভাবে ফিট রাখাটাই জরুরি। এ বিষয়ে যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী অবনী। তিনি আরো বলেন, আমি প্রতিযোগিতায় সৌন্দর্যের পাশাপাশি আমাদের দেশে লোক নৃত্য উপস্থাপন করবো। ছোটবেলা থেকে আমি নাচতেই পছন্দ করি। দেশের হয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অনেক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছি। তবে এবারে বড় একটা কম্পিটিশনে অংশ নিচ্ছি এটা আমার জন্য অনেক বড় পাওয়া।

অবনী বলেন, এর আগে উপমহাদেশ থেকে শুধু নেপালের আয়ুশা শ্রেষ্ঠা চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন। এবার বাংলাদেশ থেকে আমি প্রতিনিধিত্ব করছি। আমি আমার সর্বোচ্চটা চেষ্টা করবো ভালো করার। বাকিটা আল্লাহ ভরসা। আমি দেশবাসীর কাছে দোয়া চাচ্ছি যাতে আমি ভালো করতে পারি, দেশের জন্য সুনাম বয়ে আনতে পারি। বর্তমানে তরুণ প্রজন্মের এ উঠতি মডেল আন্তর্জাতিক এই প্রতিযোগিতায় সাফল্য ও দেশের জন্য যাতে সুনাম বয়ে আনতে পারেন সেজন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন অবনী।