‘পোশাকে ৫০ বিলিয়ন ডলার রপ্তানি সম্ভব’

পোশাক খাতে ২০২১ সালের মধ্যে ৫০ বিলিয়ন ডলার রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা অর্জন দুঃসাধ্য নয়, বরং অর্জনযোগ্য বলে মনে করেন বিজিএমইএ সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান। গতকাল মঙ্গলবার তৈরি পোশাকশিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর সঙ্গে ইংরেজি দৈনিক ডেইলি স্টারের মধ্যে এক সমঝোতা চুক্তিস্বাক্ষর অনুষ্ঠানে তিনি এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

রাজধানীর কারওয়ান বাজারে বিজিএমইএ কার্যালয়ে চুক্তিস্বাক্ষর অনুষ্ঠানে বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, ‘চলতি অর্থবছরে পোশাক খাতে রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে ২৭ বিলিয়ন ডলারের। কিন্তু আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে ২০২১ সালের মধ্যে এই লক্ষ্যমাত্রাকে ৫০ বিলিয়ন ডলারে উন্নীত করা। এটি অনেক চ্যালেঞ্জের বটে, তবে অর্জন সম্ভব বলেই আমরা মনে করি।’ তিনি দাবি করেন, ‘সামনে এ দেশে পোশাক খাত সম্প্রসারণের বিরাট সুযোগ অপেক্ষা করছে। চীন, ভিয়েতনাম, কম্বোডিয়া এসব দেশে বিনিয়োগে আগ্রহীরা শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশেই আসবে বলে আমরা মনে করি। কিন্তু ওই বিনিয়োগকারীদের আকর্ষণে আমাদের এখন থেকেই সে ধরনের প্রস্তুতি ও সার্বিক সক্ষমতা অর্জন করে দেখাতে হবে। এর জন্য আমাদের ইতিবাচক প্রচারণা দরকার। গণমাধ্যমের সহযোগিতা ছাড়া এটি সম্ভব নয়।’ তিনি আগামী ২০২১ সালের মধ্যে ৫০ বিলিয়ন ডলারের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সরকারের সার্বিক সহযোগিতার পাশাপাশি গণমাধ্যমেরও সব ধরনের সহযোগিতা কামনা করেন।

চুক্তি অনুযায়ী স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে ২০২১ সালকে সামনে রেখে পোশাক খাতের উদ্যোক্তারা ৫০ বিলিয়ন ডলার রপ্তানি আয়ের যে পরিকল্পনা নিয়েছেন, সেটি অর্জনে গণমাধ্যমের ভূমিকায় থেকে বিজিএমইকে ডেইলি স্টারের প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান করা। ডেইলি স্টার সম্পাদক মাহফুজ আনাম ও বিজিএমইএর সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে এই চুক্তিটি স্বাক্ষর করেন। চুক্তিস্বাক্ষর অনুষ্ঠানে ডেইলি স্টার সম্পাদক মাহফুজ আনাম বলেন, ‘পোশাক খাতে ৫০ বিলিয়ন ডলারের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন দুঃসাধ্য নয়, তবে অনেক কঠিন। কারণ মনে রাখতে হবে গত ২৫ বছরে এ খাত থেকে অর্জিত হয়েছে মাত্র ২৬ বিলিয়ন ডলার। সেখানে আগামী চার বছরের মধ্যে বাকি লক্ষ্যমাত্রা অর্জন কতটা চ্যালেঞ্জের সেটি বলাবাহুল্য। কিন্তু আমাদের এগিয়ে যেতে বাধা কোথায়?’