বাংলাদেশ ব্যাংকের সিদ্ধান্তে পুঁজিবাজারে উল্লম্ফন

পুঁজিবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগ সমন্বয়ে সাবসিডিয়ারি কম্পানির মূলধনকে একসঙ্গে গণনা না করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের সিদ্ধান্তে ইতিবাচক ধারায় ফিরেছে পুঁজিবাজার। এক লাফেই মূল্যসূচকের পতনবৃত্ত ভেঙে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাজার। ব্যাপকহারে বেড়েছে লেনদেন। বেশ কিছুদিন থেকে অব্যাহতভাবে সূচক ও লেনদেনে পতন হচ্ছিল।

সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবস গতকাল সোমবার ৪৮৮ কোটি ৮৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আর ৯ কোটি ৬৮ লাখ শেয়ারের হাতবদল হয়েছে। আগের দিনের চেয়ে লেনদেন বেড়েছে ১৪০ কোটি ৯৬ লাখ টাকা। মূল্যসূচক বেড়েছে ৬৭ পয়েন্ট। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৩৪৭ কোটি ৯০ লাখ টাকা। আর সূচক কমেছিল ৯ পয়েন্ট।

ডিএসইর ওয়েবসাইটের তথ্য অনুযায়ী, সকাল সাড়ে ১০টায় লেনদেন শুরুর সঙ্গে সঙ্গেই সূচক ঊর্ধ্বমুখী হয়। একটানা সাত মিনিট উত্থানে ৬১ পয়েন্ট বাড়ে সূচক। পরবর্তী সময়ে কিছুটা নিম্নমুখী হলেও আবার সূচকের ঊর্ধ্বমুখিতা ফিরে আসে। আর সূচকের এই ঊর্ধ্বমুখিতায় দিনের লেনদেন শেষ হয়েছে। দিনশেষে সূচক দাঁড়িয়েছে চার হাজার ৫৭৮ পয়েন্ট। ডিএস-৩০ মূল্যসূচক ১৯ পয়েন্ট বেড়ে এক হাজার ৭৩৪ পয়েন্ট ও ডিএসইএস শরিয়াহ সূচক ১২ পয়েন্ট বেড়ে এক হাজার ১০১ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। লেনদেনে অংশ নেওয়া ৭৭ শতাংশ কম্পানির দাম বেড়েছে। ৩২০টি কম্পানির মধ্যে বেড়েছে ২৪৭টি, কমেছে ৫১টি ও অপরিবর্তিত রয়েছে ২২টি কম্পানির শেয়ারের দাম।

গতকাল লেনদেনের শীর্ষে ছিল কাশেম ড্রাইসেল, বেক্সিমকো ফার্মা, স্কয়ার ফার্মা, কেডিএস অ্যাকসেসরিজ, বিএসআরএম স্টিল, এমারেল্ড অয়েল, আফতাব অটোস, আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক, তিতাস গ্যাস ও লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট। দাম বৃদ্ধির শীর্ষে রয়েছে ফনিক্স ফাইন্যান্স, গ্রিন ডেল্টা, বারাকাহ পাওয়ার, মেঘনা লাইফ ইনস্যুরেন্স, ইসলামিক ফাইন্যান্স, ন্যাশনাল হাউজিং, অ্যাপেক্স স্পিনিং, রিজেন্ট টেক্সটাইল, জিএসপি ফাইন্যান্স ও কেডিএস অ্যাকসেসরিজ। চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে লেনদেন হয়েছে ২১ কোটি ৮৭ লাখ টাকা। আর সূচক বেড়েছে ১২৫ পয়েন্ট। দিনশেষে সূচক দাঁড়িয়েছে আট হাজার ৫০৯ পয়েন্টে। লেনদেনে অংশ নেওয়া ২৩৭টি কম্পানির মধ্যে বেড়েছে ১৮৮টি, কমেছে ৩২টি ও অপরিবর্তিত রয়েছে ১৬টি কম্পানির শেয়ারের দাম। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২২ কোটি ৮৭ লাখ টাকা। আর সূচক কমেছিল ১২ পয়েন্ট।

বাংলাদেশ ব্যাংককে ডিএসইর অভিনন্দন : পুঁজিবাজারকে সম্প্রসারিত ও গতিশীল করতে ব্যাংকের বিনিয়োগ-সংক্রান্ত নীতিমালা শিথিল করায় বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমানকে অভিনন্দন জানিয়েছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ কর্তৃপক্ষ। ব্যাংক কম্পানি কর্তৃক পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ-সংক্রান্ত নীতিমালা পুঁজিবাজারের প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংকের বিশেষ গুরুত্বারোপ, ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি ও মনোভাব এবং এই সিদ্ধান্তে পুঁজিবাজারে ইতিবাচক প্রভাব পড়বে বলে আশা প্রকাশ করেছে কর্তৃপক্ষ।