মুঠোফোন ও ইন্টারনেট গ্রাহক বেড়েছে ৬ লাখ

চলতি বছরের অক্টোবরে দেশে মুঠোফোন ও ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা বেড়েছে ছয় লাখ। বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) সর্বশেষ প্রকাশিত পরিসংখ্যানে এ তথ্য উঠে এসেছে। মুঠোফোনের এ গ্রাহকসংখ্যা প্রকাশ করা হয় দেশে চালু থাকা মোট সিমের হিসাবে।
বিটিআরসির হিসাব অনুযায়ী, অক্টোবর পর্যন্ত মুঠোফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৩ কোটি ১৯ লাখ, যা গত সেপ্টেম্বরে ছিল ১৩ কোটি ১৪ লাখ। ২০১৪ সালের অক্টোবরে মুঠোফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যা ছিল ১১ কোটি ৮৯ লাখ।
সবচেয়ে বড় অপারেটর গ্রামীণফোনের গ্রাহক সেপ্টেম্বরের তুলনায় অক্টোবরে তিন লাখ বেড়েছে। অক্টোবরে তাদের গ্রাহকসংখ্যা ছিল ৫ কোটি ৫৮ লাখ ৯৬ হাজার, আর গত সেপ্টেম্বরে তা ছিল ৫ কোটি ৫৫ লাখ।
গ্রামীণফোনের গ্রাহক বাড়লেও দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে থাকা বাংলালিংক ও রবির গ্রাহক এ সময়ে কমে গেছে। সেপ্টেম্বরে বাংলালিংকের গ্রাহকসংখ্যা ছিল ৩ কোটি ২৬ লাখ ১৫ হাজার, অক্টোবরে তা কমে ৩ কোটি ২৫ লাখ ৯৯ হাজার হয়েছে। রবি আজিয়াটার গ্রাহক ২ কোটি ৮৩ লাখ ৭৩ হাজার থেকে কমে ২ কোটি ৮২ লাখ ৮৮ হাজার হয়েছে। একই সময়ে এয়ারটেলের গ্রাহক ৯৭ লাখ থেকে ৩ লাখ বেড়ে এক কোটি হয়েছে।
রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন টেলিটকের গ্রাহক সেপ্টেম্বর থেকে অক্টোবরে ৪১ লাখ ৮ হাজার থেকে বেড়ে ৪১ লাখ ৪১ হাজার হয়েছে। গ্রাহক কমা অব্যাহত আছে সবচেয়ে পুরোনো অপারেটর সিটিসেলের। অক্টোবরে সিটিসেলের গ্রাহক ১১ লাখ ১৩ হাজার থেকে কমে ১০ লাখ ৮৯ হাজার হয়েছে।
ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর প্রবৃদ্ধি সেপ্টেম্বরের তুলনায় অক্টোবরে কিছুটা কমে গেছে। সেপ্টেম্বরে দেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী বেড়েছিল ১৮ লাখ, আর অক্টোবরে বেড়েছে ৫ লাখ। বিটিআরসির পরিসংখ্যান অনুযায়ী, অক্টোবরে ইন্টারনেট গ্রাহকসংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫ কোটি ৪৬ লাখ, আর সেপ্টেম্বরে তা ছিল ৫ কোটি ৪০ লাখ। এর মধ্যে মোবাইল ফোনে ইন্টারনেট গ্রাহকসংখ্যা ৫ কোটি ১৯ লাখ থেকে ৪ লাখ বেড়ে ৫ কোটি ২৩ লাখ হয়েছে। আইএসপি ও পিএসটিএন ইন্টারনেট ব্যবহারকারী ১৯ লাখ থেকে বেড়ে ২১ লাখ হয়েছে। অন্যদিকে ওয়াইম্যাক্স ইন্টারনেটের গ্রাহক ১ লাখ ৬৫ হাজার থেকে ৬ হাজার কমে ১ লাখ ৫৯ হাজার হয়েছে।