২০১৬ সালে শিক্ষার্থীরা পাবে ৩৩ কোটি ৩৭ লাখ নতুন বই

২০১৬ সালে সরকার ৩৩ কোটি ৩৭ লাখ ৬২ হাজার ৭৬০ কপি পাঠ্যপুস্তক বিনামূল্যে বিতরণ করবে। প্রাক-প্রাথমিক, প্রাথমিক, ইবতেদায়ি, দাখিল ও দাখিল ভোকেশনাল, মাধ্যমিক এবং এসএসসি ভোকেশনাল শ্রেণির শিক্ষার্থীর জন্য বই ছাপানো হচ্ছে। নতুন বছরের প্রথম ক্লাসেই নতুন বই পাবে শিক্ষার্থীরা।
প্রতি বছর ১ জানুয়ারি সারা দেশ পাঠ্যপুস্তক উৎসব করা হয়। এ দিন সব সরকারি- বেসরকারি স্কুলে ছেলে-মেয়েদের হাতে সরকারি উদ্যোগে বিতরণ করা হয় পাঠ্যপুস্তক। আগামী ১ জানুয়ারি শুক্রবার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় ২ জানুয়ারি শনিবার হতে পারে ‘পাঠ্যপুস্তক উৎসব ২০১৬’।
শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ গতকাল সোমবার প্যারিসে রওনা দেওয়ার আগে জানান, প্রতিবছরের মতো এবারও সরকার নতুন বছরের প্রথম ক্লাসে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেবে। যথাসময়ে শিক্ষার্থীর হাতে বই পৌঁছতে মুদ্রণ প্রতিষ্ঠানগুলোয় চলছে নতুন বই ছাপা-বাইন্ডিং উৎসব। তৈরি হওয়া বই সঙ্গে সঙ্গে বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় পৌঁছে যাচ্ছে।
জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) তথ্যানুযায়ী, আগামী বছরের জন্য প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণির জন্য ৬ কোটি ৫ লাখ ৭৭ হাজার ১৪২ কপি, প্রাথমিকে (প্রথম-পঞ্চম) শ্রেণির জন্য ১০ কোটি ৮৭ লাখ ১৯ হাজার ৯৯৭ কপি, ইবতেদায়ি (মাদ্রাসা প্রাথমিক) ১ কোটি ৯২ লাখ ৫৫ হাজার ৬১৫ কপি, দাখিল ও দাখিল ভোকেশনাল শ্রেণির জন্য ৩ কোটি ৩৯ লাখ ৩৩ হাজার ৭৯৭ কপি, মাধ্যমিক ১ কোটি ৬৩ লাখ ৪ হাজার ৩৭৩ কপি এবং এসএসসি ভোকেশনালের জন্য ২২ লাখ ৭১ হাজার ৮৩৬ কপিসহ মোট ৩৩ কোটি ৩৭ লাখ ৬২ হাজার ৭৬০ কপি নতুন পাঠ্যপুস্তক ছাপানোর কাজ চলছে।