‘বঙ্গবন্ধু- ১’ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের কাজ শুরু ডিসেম্বরে

বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু- ১’ এর নির্মাণ ও উৎক্ষেপণের কাজ চলতি বছরের ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবসে শুরু হতে যাচ্ছে। এ কাজের জন্য আর্থিক ও কারিগরি যাচাই-বাছাইয়ের পর সরকার ইতিমধ্যেই ফরাসি কোম্পানি ‘থ্যালেস অ্যালেনিয়া’কে নির্বাচিত করেছে।

এ ব্যাপারে ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেন, ‘আমাদের প্রথম স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু-১’ ১৬ ডিসেম্বর ২০১৭ উৎক্ষেপণ করা হবে।’

তারানা হালিম আরো বলেন, ‘নির্মাণ ও অন্যান্য আনুসঙ্গিক কাজ আগামী ১৬ ডিসেম্বর শুরু হতে যাচ্ছে। যোগাযোগ ও সম্প্রচারের ক্ষেত্রে স্যাটেলাইট প্রস্তুত, উৎক্ষেপণ ও পরিচালনার থ্যালস খুবই নির্ভরযোগ্য।’

মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) সুপারিশ অনুসারে, স্যাটেলাইটটি পরিচালনার জন্য থ্যালেস অ্যালেনিয়াকে মনোনীত করেছে। এমডিএ কর্পোরেশন ২২ কোটি মার্কিন ডলার সর্বনিম্ম দরপত্র দেয়, কিন্ত থ্যালেস অ্যালেনিয়া অপেক্ষাকৃত ভাল বিবেচনায় এটিকে মনোনীত করা হয়। এ কোম্পানিটির প্রস্তাবিত দরপত্রে আর্থিক অঙ্ক ছিল ২৪ দশমিক ৮০ কোটি মার্কিন ডলার।

উল্লেখ্য, একনেক ২০১৪ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর ২ হাজার ৯৬৭ দশমিক ৯৫ কোটি টাকা ব্যয়ে ‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ প্রকল্প’ অনুমোদন করে। এই প্রকল্পের আওতায় গাজীপুরের জয়দেবপুরে এবং রাঙ্গামাটির বেতবুনিয়ায় দুইটি আর্থ-স্টেশন স্থাপন করা হবে। টেলিভিশন চ্যানেল, টেলিফোন এবং বেতার যোগাযোগের জন্য বাংলাদেশ প্রতিবছর প্রায় ১৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অর্থ ব্যয় করে। নিজস্ব স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু-১’ উেক্ষপণ করা হলে সম্প্রচার বাবদ প্রতিবছর ১১০ থেকে ১২০ কোটি টাকার বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় হবে।
খবর বাসসের।