১৫শ কোটি টাকা ব্যয়ে জাতীয় ডাটা সেন্টার স্থাপন

‘ভিশন-২০২১’ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ১৫শ’ কোটি টাকা ব্যয়ে জাতীয় ডাটা (তথ্য) সেন্টার স্থাপণের চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়েছে। জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে এ অনুমোদন দেওয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন একনেক সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

জনপ্রশাসনে আইসিটি সিস্টেম ব্যবহারের মাধ্যমে দক্ষতা, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করে জনগণের দোরগোড়ায় তথ্যপ্রযুক্তির সেবা পৌঁছে দিতেই এ অনুমোদন দেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি। চীনা প্রতিষ্ঠান জেডটিই করপোরেশনের সঙ্গে ফোর টায়ার জাতীয় ডাটা সেন্টার প্রকল্পটির মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ১ হাজার ৫১৬ কোটি টাকা। এর মধ্যে ১ হাজার ২০০ কোটি টাকা দেবে চীনের এক্সিম ব্যাংক। গাজীপুরের কালিয়াকৈরে সাত একর জমির ওপর ডাটা সেন্টারটি স্থাপন করা হবে।

একনেক সভা শেষে পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, ‘প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে সকল কাযর্ক্রম পেপার লেস হয়ে যাবে। ফাইল টানাটানির দিন শেষ হয়ে যাবে। আমাদের ডাটার চাহিদা অনেক কিন্তু সেই অনুযায়ী পাচ্ছি না। প্রকল্পের মাধ্যমে ডাটার চাহিদা পূরণ করা হবে। দেশ আরো ডিজিটাল হয়ে যাবে।’

এটিসহ সভায় মোট চারটি প্রকল্পের জন্য মোট ২ হাজার ৪৭৪ কোটি ৯৫ লাখ টাকার চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়। এর মধ্যে সরকারি তহবিল থেকে আসবে ১ হাজার ৮৯ কোটি ৫৪ লাখ টাকা এবং প্রকল্প সাহায্য ১ হাজার ৩৮৫ কোটি ৪১ লাখ টাকা। অন্য তিনটি প্রকল্প হলো, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার তিতাস নদী পুনঃখনন প্রকল্পের চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়। এর মোট ব্যয় ১৫৫ কোটি ৮৮ লাখ টাকা। এছাড়া ৮৬ কোটি ৭৯ লাখ টাকা ব্যয়ে পদ্মা নদীর ভাঙ্গন হতে রাজশাহী ক্যাডেট কলেজ রক্ষার্থে একটি প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়।