‘মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ অধ্যাদেশ’ অনুমোদন

বিদেশি প্রতিনিধি দলকে অগ্রগতি দেখাতে ‘মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন ২০১৫’ অধ্যাদেশ হিসেবে অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। এতে এটি ‘মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ অধ্যাদেশ ২০১৫’ হিসেবে বিবেচিত হবে।

আজ সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

চলতি মাসের ১১ ও ১২ অক্টোবর ‘এশিয়া প্যাসিফিক গ্রুপ অব মানিলন্ডারিং’ বাংলাদেশ সফর করবে। তারা এ ব্যাপারে বাংলাদেশের অগ্রগতি পর্যবেক্ষণ এবং আন্তর্জাতিক ও আঞ্চলিক মূল্যায়ন করবে। সফরকারী প্রতিনিধি দলকে মানিলন্ডারিং প্রতিরোধে বাংলাদেশের অগ্রগতি দেখাতে আইনটি অধ্যাদেশ আকারে অনুমোদন করেছে মন্ত্রিপরিষদ। এখন সংসদ অধিবেশন না থাকায় এটি আইন আকারে পাস করা সম্ভব নয়।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোশাররাফ হোসাইন ভূইঞা বলেন, জরুরি বিবেচনায় অধ্যাদেশ আকারে অনুমোদন করা হয়েছে। সংসদের পরবর্তী অধিবেশনে এর অনুমোদন নেওয়া হবে।

আজকের বৈঠকে চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় আইন ও রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় আইনের খসড়া অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এই আইন পাস হলে দুটি মেডিকেল কলেজের স্বাতন্ত্র্য নষ্ট হবে না। কলেজগুলো সংশ্লিস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত হবে। আর বিশ্ববিদ্যালয়ে কেবল স্নাতকোত্তর বিষয়ে পড়ানো হবে।